বুধবার, ২২ মে ২০২৪

শিরোনাম

আইনি বিপর্যয়ে ট্রাম্প, অবকাশ যাপনে বাইডেন  

বুধবার, আগস্ট ২, ২০২৩

প্রিন্ট করুন

ডেলাওয়্যার, যুক্তরাষ্ট্র: প্রেসিডেন্ট বাইডেন যখন নিজ রাজ্য ডেলাওয়্যারে ছুটি কাটাচ্ছিলেন, ঠিক তখনি যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে তৃতীয় মামলায় অভিযোগ আনা হয়। বাইডেন ডেলাওয়ার সমুদ্রসৈকতে ম্যাটস ফিশ ক্যাম্পে ফিশিং করছেন, রেস্তোরাঁয় বসে ফ্রাইড ফিস খাচ্ছেন, ‘ওপেনহেইমার’ চলচ্চিত্র দেখছেন এবং সেখানে বেশ আয়েশে সময় কাটাচ্ছেন। অপর দিকে, বেড়েই চলছে ডোনাল্ড ট্রাম্পের আইনগত বিপর্যয়।

সম্প্রতি ছুটি কাটাতে যাওয়া বাইডেনের সাথে সাংবাদিকদের কথা বলার কোন সুযোগ দিচ্ছে না হোয়াইট হাউসের কর্মকর্তারা। প্রেসিডেন্টের কাছ থেকে তাদেরকে দূরে রাখার চেষ্টা করা হচ্ছে। কেউ যাতে তাকে ডোনাল্ড ট্রাম্পের মামলা নিয়ে প্রশ্ন করতে না পারেন, সে জন্যই এই ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। আইনি ঝামেলা নিয়ে ব্যাপক চাপের মধ্যে আছেন আগামী নির্বাচনে তার সম্ভাব্য রিপাবলিকান প্রতিদ্বন্দ্বী ডোনাল্ড ট্রাম্প।

বাইডেন এক সপ্তাহের ছুটি কাটাচ্ছেন। মঙ্গলবার (১ আগস্ট) রাতে রেস্তোরাঁয় খাবার সেরে তিনি ‘ওপেনহেইমার’ চলচ্চিত্র দেখে হল থেকে বের হন বলে জানায় স্থানীয় গণমাধ্যম। ঠিক ওই দিনই জ্যাক স্মিথ ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ২০২০ সালের নির্বাচনের ফল উল্টে দেওয়ার চেষ্টার অভিযোগে মামলা করেন। তিনি ট্রাম্পের এই চেষ্টাকে ‘আমেরিকার গণতন্ত্রে নজিরবিহীন আঘাত’ বলে উল্লেখ করেন।

অপর দিকে, হোয়াইট হাউস ও বাইডেনের পুনঃ নির্বাচনের প্রচারণার সদস্যরা ট্রাম্পের মামলা সম্পর্কে মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন। হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র ইয়ান স্যামস সাংবাদিকদের বলেন, ‘এর পরিবর্তে আমরা বিচার বিভাগের সাথে কথা বলার পরামর্শ দিচ্ছি ও তারা এই ফৌজদারি মামলায় স্বাধীনভাবে কাজ করতে পারবে এ আশ্বাস দিচ্ছি।’

ঠিক যখনি ২০২৪ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন ঘনিয়ে আসছে, তখনি ট্রাম্পের ব্যাপক আইনি ঝামেলা ও বাইডেনের এমন নীরবতা দেখা যাচ্ছে। ২০২০ সালের নির্বাচনে ট্রাম্পকে পরাজিত করে হোয়াইট হাউসে যান বাইডেন। পরিস্থিতি দেখে মনে হচ্ছে যে, প্রেসিডেন্ট রাজনীতির ওই নিয়মটি মেনে চলছেন, ‘যখন তোমার প্রতিদ্বন্দ্বী ঝামেলার মধ্যে পড়বে, তখন তুমি পরিষ্কার অবস্থান নেবে ও যে কোন ধরনের সমালোচনা থেকে বিরত থাকবে।’

উপরন্তু, হোয়াইট হাউস সব সময়ই বিচার বিভাগকে প্রভাবিত করতে পারে বলে ধারণা রয়েছে সবার। এ কারণে প্রেসিডেন্ট বাইডেন এমন অবস্থান থেকে সব সময় নিজেকে আড়াল করে রেখেছে। তার প্রশাসন খুব সতর্কতার সাথে এই পরিস্থিতি মোকাবিলা করছে বলে জানায় স্থানীয় গণমাধ্যম।

এছাড়া হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি কারিন জিন পিয়েরে শুক্রবার (২৮ জুলাই) সাংবাদিকদের বলেন, ‘বিচার বিভাগ সর্বদাই স্বাধীন ও আপনারা আমাদের মুখ থেকে সব সময় এই কথাটিই শুনবেন। আমরা সব সময় আইনের শাসনে বিশ্বাসী এবং প্রেসিডেন্ট এ ব্যাপারে সব সময় একই অবস্থানে থাকবেন।’

ভবিষ্যতে বাইডেনকে নীরবতার এই পরীক্ষা আরো দিতে হতে পারে। কারণ, ট্রাম্প বাইডেন ও তার পরিবারকে সমানভাবে আক্রমণ করে আসছেন। ট্রাম্প তার পরিবারকে ‘বাইডেনের অপরাধী পরিবার’ বলেও আখ্যা দিচ্ছেন। তার অভিযোগ, তার বিরুদ্ধে বিচার বিভাগকে ব্যবহার করা হচ্ছে।

সর্বশেষ জরিপে দেখা যাচ্ছে, আগামী নির্বাচনে বাইডেন (৮০) ও ট্রাম্পের (৭৭) মধ্যে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে।

সিএন/এমএ

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন