বুধবার, ২২ মে ২০২৪

শিরোনাম

উৎক্ষেপণের ৪৬ বছর বাদ ফের ভয়েজার-২ এর হৃৎস্পন্দন শুনল নাসা

বুধবার, আগস্ট ২, ২০২৩

প্রিন্ট করুন

ক্যালিফোর্নিয়া, যুক্তরাষ্ট্র: উৎক্ষেপণের ৪৬ বছর পরে এসেও মহাকাশযান ভয়েজার-২ এর সংকেত শুনতে পেয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসার ভয়েজার মিশন টিম। এই সংকেতকে তারা বলছে ভয়েজারের হৃৎস্পন্দন।

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার পাসাডেনায় নাসার জেট প্রপালশন ল্যাবরেটরিতে (জেপিএল) ভয়েজারের প্রজেক্ট ম্যানেজার সুজান ডড বলেন, ‘আমরা ভয়েজার-২ থেকে কোন সংকেত শুনতে পাচ্ছি কি না, তা বোঝার জন্য ডিপ স্পেস নেটওয়ার্ক ও রেডিও সায়েন্স গ্রুপের সাহায্য নেই। আমরা এতে সফল হয়েছি। এটি ভয়েজার-২ থেকে পাঠানো সংকেতই ছিল। তাই বলা যায়, মহাকাশযানটি এখনো কাজ করছে।’

এর আগে সবশেষ গের ২১ জুলাই পৃথিবীতে সংকেত পাঠিয়েছিল ভয়েজার-২। সে সময় পৃথিবী থেকে পাঠানো একটি ভুল কমান্ডের কারণে পৃথিবীর দিকে তাক করা মহাকাশযানটির অ্যান্টেনা ২ ডিগ্রি বেঁকে যায়। এরপর থেকেই আর সিগনাল পাওয়া যাচ্ছিল না।  

সংকেত সফলতার সাথে গ্রহণ করার পর এবার মিশনে নিযুক্ত দলটি মহাকাশযানে ফের সংকেত পাঠানোর চেষ্টা করবে।

ডচ বলেন, ‘আমরা এখন পৃথিবীর দিকে মহাকাশযানটির অ্যান্টেনা ফের ঘোরানোর চেষ্টা করব এবং এ জন্য আমরা একটি নতুন কমান্ড তৈরি করব। যদিও, এটি কাজ করার সম্ভাবনা কম।’

তবে, ভয়েজার ২ তে পুনঃঅভিমুখী কৌশল ব্যবস্থা রয়েছে। সাধারণত বছরে দুই বার সে রিসেট নেয়। সেই হিসেবে আগামী ১৫ অক্টোবর স্বয়ংক্রিয়ভাবেই এটি তার আগের অবস্থানে ফিরে আসার সম্ভাবনা রয়েছে।

জেট প্রপালশন ল্যাবরেটরি নির্মিত ভয়েজার-২ হলো ৭২২ কেজি ওজনের একটি বিশাল স্পেস প্রব। আমাদের সৌরজগতের অন্য গ্রহ ও সৌরজগতের বাইরের পরিবেশ সম্পর্কে জানতে ১৯৭৭ সালের ২০ আগস্ট এটিকে মহাশূন্যে পাঠানো হয়।

উৎক্ষেপণের ৪১ বছর পর ২০১৮ সালের ৫ নভেম্বর নাসা এক ঘোষণায় জানায়, ভয়েজার ১ এরপর পৃথিবীতে নির্মিত দ্বিতীয় বস্তু; যা আমাদের সৌরজগতের সীমা ছাড়িয়ে আন্তঃনাক্ষত্রিক মহাকাশে ঢুকেছে।

সিএন/এমএ

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন