রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪

শিরোনাম

একীভূত করলেও পদ্মা ব্যাংকের কোন কর্মচারী চাকরি হারাবে না

মঙ্গলবার, মার্চ ১৯, ২০২৪

প্রিন্ট করুন

ঢাকা: পদ্মা ব্যাংক শরিয়াহভিত্তিক এক্সিম ব্যাংক পিএলসির সাথে একীভূত হয়েছে। সোমবার (১৮ মার্চ) বাংলাদেশ ব্যাংকে আনুষ্ঠানিক চুক্তি সইয়ের মধ্য দিয়ে এ একীভূতকরণ সম্পন্ন হয়। চুক্তি সই অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ গভর্নর আবদুর রউফ তালুকদারসহ দুই ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

দুর্বল ও সবল ব্যাংকগুলোর সাথে দুর্বল ব্যাংকের একীভূতকরণে বাংলাদেশ ব্যাংকের সাম্প্রতিক উদ্যোগের পর এটিই প্রথম দেশে দুই ব্যাংকের একীভূতকরণ বাস্তবায়ন করা হল।

এক্সিম ব্যাংকের চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম মজুমদার বলেন, ‘আগামীকাল থেকে পদ্মা ব্যাংকের আর অস্তিত্ব থাকবে না। একীভূতকরণের ফলে নয়া করে এক্সিম ব্যাংক নামে কার্যক্রম পরিচালিত হবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘একীভূতকরণের কারণে কোন কর্মী চাকরি হারাবেন না। তবে, পদ্মা ব্যাংকের পরিচালকরা এক্সিম ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদে থাকতে পারবেন না। দুই ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালকদের ব্যাপারে এখনো কোন সিদ্ধান্ত হয়নি।’

নজরুল ইসলাম মজুমদার বলেন, ‘পদ্মা ব্যাংকের সাথে একীভূত হওয়ার ব্যাপারে সরকারের পক্ষ থেকে কোন চাপ ছিল না, বরং সরকারের পক্ষ থেকে এটি একটি পরামর্শ ছিল। দেশের স্বার্থে, অর্থনীতির স্বার্থে আমরা এটা করেছি।’

একীভূতকরণের ফলে আমানতকারী ও শেয়ারহোল্ডারদেরও কোন সমস্যা হবে না বলে জানান তিনি।

এক্সিম ব্যাংকের চেয়ারম্যান বলেন, ‘ব্যাংকগুলোর একীভূতকরণের দুইটি পদ্ধতি রয়েছে- অধিগ্রহণ ও একীভূতকরণ। আমরা অধিগ্রহণ করিনি, আমরা একীভূতকরণ করেছি।’

সূত্র জানায়, পদ্মা ব্যাংকের প্রায় এক হাজার ২০০ কর্মী এখন থেকে এক্সিম ব্যাংকে অধীনে কাজ করবে।

পদ্মা ব্যাংকের খেলাপি ঋণ প্রায় চার হাজার কোটি টাকা ও পদ্মার কাছে সরকারি ব্যাংকগুলোর দায় প্রায় তিন হাজার কোটি টাকা।

এ ব্যাপারে এক্সিম ব্যাংকের চেয়ারম্যান বলেন, ‘পদ্মা একীভূত হয়ে যাওয়ায় পদ্মা ব্যাংকের সব দায় এখন এক্সিম ব্যাংকের।’

শরিয়াহভিত্তিক ব্যাংক প্রসঙ্গে নজরুল ইসলাম বলেন, ‘এক্সিম ব্যাংক শরিয়াহভিত্তিক। পদ্মা ব্যাংক সাধারণ হলেও যেহেতু আমরা (এক্সিম) একীভূত করেছি, তারাও শরিয়াহভিত্তিক হবে। এক্সিম ব্যাংকের প্রতিটি সূচক ভাল অবস্থানে আছে, আশা করি আরো ভাল করবে।’

সিএন/আলী

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন