রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪

শিরোনাম

ওয়েব টেলিস্কোপের প্রথম বার্ষিকীতে নতুন ছবি প্রকাশ করবে নাসা

বৃহস্পতিবার, জুলাই ১৩, ২০২৩

প্রিন্ট করুন

ওয়াশিংটন, যুক্তরাষ্ট্রের: দূরবর্তী মহাজগতের শ্বাসরুদ্ধকর দৃশ্য দিয়ে পৃথিবীকে স্তম্ভিত করার এক বছর পর বুধবার (১২ জুলাই) নাসা জেমস ওয়েব স্পেস টেলিস্কোপ থেকে একটি নতুন চিত্র উন্মোচন করতে যাচ্ছে। জেমস ওয়েব কক্ষপথের সবচেয়ে শক্তিশালী টেলিস্কোপ। এটি ২০২১ সালের ডিসেম্বরে ফ্রেঞ্চ গায়ানা থেকে মহাকাশে পাঠানো হয়। এটি পৃথিবী থেকে ১৬ লাখ মাইল দূরে দ্বিতীয় ল্যাগ্রেঞ্জ পয়েন্ট (এল-২) নামে একটি কক্ষপথে স্থাপন করা হয়।

এটির ধারণ করা প্রথম পূর্ণ রঙিন ছবি ২০২২ সালের ১১ জুলাই যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন উন্মোচন করেন। এটি এক হাজার ৩০০ কোটি বছর আগের আদি মহাবিশ্বের এখনো পর্যন্ত সবচেয়ে পরিষ্কার দৃশ্য।

পরবর্তী ছবিগুলোর মধ্যে রয়েছে ক্যারিনা নেবুলা নামের মহাকাশের একটি অঞ্চলে ‘পর্বত’ ও ‘উপত্যকা’ সদৃশ্য নতুন তারকা-গঠনকারী অঞ্চলের ছবি, যাকে কসমিক ক্লিফস বা জায়ান্ট গ্যাসীয় মন্ডল বলা হয় এবং একটি মহাজাগতিক বৃত্তে আবদ্ধ পাঁচটি ছায়াপথের একটি দল, যাকে বলা হয় স্তেফানের কুইন্টেট। পেগাসাস নক্ষত্রমন্ডলে এ গ্যালাক্সি জোটের অবস্থান। এটি প্রথম ১৮৭৭ সালে এদোয়ার্দ স্তেফান আবিস্কার করেন।

বুধবারের (১২ জুলাই) প্রকাশের ছবির প্রকৃতি সম্পর্কে নাসা নীরব রয়েছে, যা ইস্টার্ন টাইম সকাল ৬:০০ এ (১০০০জিএমটি) নাসার ওয়েবসাইটে দেখা যাবে।

ওয়েব টেলিস্কোপে ২১ ফুটের (ছয় দশমিক পাঁচ মিটার) বেশি পরিমাপের একটি প্রাইমারি মেরর রয়েছে, যা ১৮টি ষড়ভুজাকার সোনার প্রলেপযুক্ত অংশ একত্রিত করে তৈরি হরা হয়েছে এবং সেইসাথে একটি টেনিস কোর্টের আকারের এ টেলিস্কোপটি পাঁচ স্তরের সানশিল্ড দিয়ে তৈরি।

এর পূর্বসূরি হাবলের বিপরীতে, এটি প্রাথমিকভাবে ইনফ্রারেড বর্ণালীতে কাজ করে। এটিকে সময়ের শুরুতে আরো কাছাকাছি ফিরে তাকানোর সুযোগ দেয় ও ধূলিকণার মেঘগুলোকে আরো ভালভাবে প্রবেশ করতে দেয়; যেখানে তারা ও গ্রহের সিস্টেমগুলো এখনো তৈরি হচ্ছে।

মূল আবিষ্কারগুলির মধ্যে রয়েছে বিগ ব্যাংয়ের কয়েক শত মিলিয়ন বছর পরে গঠিত প্রথম দিকের কিছু ছায়াপথ। আমাদের সৌরজগতের বাইরের একটি গ্রহের বায়ুমন্ডলে কার্বন ডাই অক্সাইড খুঁজে পাওয়া ও আমাদের সৌর জগতের বৃহস্পতি গ্রহের অত্যাশ্চর্য নতুন দৃশ্য।

জ্যোতির্বিদ্যার একটি নতুন যুগের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ২০ বছরের দীর্ঘ মিশনের জন্য ওয়েবের যথেষ্ট জ্বালানী রয়েছে।

সিএন/এমএ

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন