বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪

শিরোনাম

চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে বাস-ট্যাক্সি সংঘর্ষে একই পরিবারের সাতজন নিহত

বুধবার, নভেম্বর ৮, ২০২৩

প্রিন্ট করুন

হাটহাজারী, চট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম জেলার হাটহাজারী উপজেলায় ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনায় বাস-সিএনজি মুখোমুখি সংঘর্ষে মা, দুই শিশু জমজ সন্তান ও দুই মেয়েসহ একই পরিবারের সাতজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় একই পরিবারে বাপ্পা নামের একজন গুরুতর আহত হয়েছে। মঙ্গলবার (৭ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে চট্টগ্রাম-নাজিরহাট-খাগড়াছড়ি মহাসড়কের মির্জাপুর ইউনিয়নের চারিয়া ইজতেমা মাঠ সংলগ্ন সড়কে এ ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ঘটনাস্থলে তিন শিশুসহ সাতজন জন মারা যায়। নিহতরা হলেন- চট্টগ্রামের চন্দনাইশ উপজেলার জোয়ারা ইউনিয়নের মোহাম্মদপুর গ্রামের কাঞ্চননগর বাদামতল এলাকার মধ্যপ্রাচ্য প্রবাসী নারায়ন দাশের স্ত্রী  রীতা দাশ (৩৫), নারায়ন দাশের যমজ দুই শিশু সন্তান দ্বীপ দাশ (৪), দিগন্ত দাশ (৪), পঞ্চম শ্রেণী পড়ুয়া মেয়ে বর্ষা দাশ (১০), এসএসসি পরীক্ষার্থী মেয়ে শ্রাবন্তী দাশ (১৭), নারায়নের বড় ভাই সম্ভু দাশের ছেলে বিপ্লব দাশ (২২) এবং নারায়নের বড় বোন, শচীন্দ্র দাশের স্ত্রী চিনু বালা দাশ (৫০)। চিনু দাশের সন্তান বাপ্পা (৩২) চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চসেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। তার অবস্থা সংকটাপন্ন।

নিহতদের লাশ বিকেলে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

চন্দনাইশ থেকে তারা ফটিকছড়ি উপজেলার মাইজভাণ্ডার বণিকপাড়া এলাকায় বেড়াতে যাচ্ছিলেন। সকাল সাড়ে ১১টার দিকে খাগড়াছড়ি থেকে চট্টগ্রাম অভিমুখী একটি যাত্রীবাহী বাসের (চট্টমেট্রো-ব-১১-১৮০৮) সাথে চারিয়া ইজতেমা মাঠ এলাকায় বিপরীত দিক থেকে আসা ফটিকছড়িগামী যাত্রীবাহী সিএনজি অটোরিকশার (চট্টগ্রাম থ-১৩-০২১৮) মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই রীতা দাশ ও তার দুই যমজ শিশু পুত্র ও দুই মেয়েসহ একই পরিবারের সাতজন নিহত হন।

নাজিরহাট হাইওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আদিল মাহমুদ বলেন, ‘বাসের চালক ও হেলপার পলাতক রয়েছে। এ বিষয়ৈ দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সিএন/এমএ

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন