সোমবার, ২০ মে ২০২৪

শিরোনাম

চবির বিভিন্ন পর্ষদে সাবেক উপাচার্যপন্থীরা, আবাসিক শিক্ষক পদে যোগদানে এক শিক্ষকের অপারগতা

সোমবার, মে ১৩, ২০২৪

প্রিন্ট করুন

সিএন প্রতিবেদন: চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) বর্তমান প্রশাসনের বিভিন্ন পর্ষদে সাবেক উপাচার্য শিরীণপন্থীরা এখনও বহাল থাকায় আবাসিক শিক্ষক পদে যোগদানে অপারগতা প্রকাশ করেছেন এক শিক্ষক। সম্প্রতি এই শিক্ষককে সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ আবদুর রব হলের আবাসিক পদে নিয়োগ দেওয়া হয়।

সোমবার (১৩ মে) বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার বরাবর পাঠানো এক চিঠিতে যোগদানে অপারগতার বিষয়টি জানানো হয়।

প্রতিবাদী এই শিক্ষকের নাম ড. ফণী ভূষণ বিশ্বাস। তিনি রসায়ন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত। এছাড়াও তিনি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির কার্যনিবাহী পর্ষদ-২০২২-এর কার্যনির্বাহী সদস্য।

চিঠিতে তিনি উল্লেখ করেন, গত ৯ মে আপনার প্রেরিত পত্রের মাধ্যমে আমি জানতে পারি যে, আগামী ০১ বছরের জন্য আমাকে শহীদ আবদুর রব হলের আবাসিক শিক্ষক নিয়োগ করা হয়েছে। আমি চবি শিক্ষক সমিতির কার্যনির্বাহী সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে সদ্য সাবেক উপাচার্য প্রশাসনের বিভিন্ন অনিয়ম ও অপশাসনের বিরুদ্ধে সক্রিয় ভূমিকা পালন করি। আমাকে এমন একটি হলে নিয়োগ প্রদান করা হয়েছে যেখানে হল প্রাধ্যাক্ষের দায়িত্বে এখনো আসীন আছেন সদ্য বিদায়ী উপাচার্যের আমলে বিভিন্ন দুর্নীতির দায়ে অভিযুক্ত একজন শিক্ষক, যাঁর বিরুদ্ধে ইউজিসির পক্ষ হতে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

চিঠিতে তিনি আরও লেখেন, অত্যন্ত পরিতাপের বিষয় হলো চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্তমান প্রশাসনের বিভিন্ন পর্ষদে প্রায় দুই মাস পূর্বে বিদায়ী উপাচার্য প্রশাসনের অপকর্মের সাথে প্রত্যক্ষভাবে জড়িত বেশ কিছু শিক্ষক এখনো বিভিন্ন হলে প্রাধ্যাক্ষের দায়িত্বসহ আরো অনেক প্রশাসনিক পর্ষদে বহাল রয়েছেন। অধিকন্তু, আমার নামে ইস্যুকৃত চিঠির সাথে একই দিনে সদ্য বিদায়ী উপাচার্যের প্রশাসনে অত্যন্ত সক্রিয় থেকে বিতর্কিত কাজ করা আরো কয়েকজন শিক্ষককে কয়েকটি হলে নতুন করে আবাসিক শিক্ষকের পদে নিয়োগ প্রদান করা হয়েছে। এমতাবস্থায়, উপরোক্ত প্রশাসনিক পদে যোগদান করা আমার জন্য অত্যন্ত লজ্জা, অপমান ও বিব্রতকর।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ড. ফণী ভূষণ বিশ্বাস চলমান নিউইয়র্ককে বলেন, আমাকে শহীদ আবদুর রব হলের আবাসিক শিক্ষক পদে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। আমি এই পদে যোগদানে অপারগতা প্রকাশ করে রেজিস্ট্রারকে চিঠি দিয়েছি। কেন অপারগতা প্রকাশ করেছি, তা চিঠিতে বিস্তারিত লেখা আছে।

সিএন/এমটি

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন