শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪

শিরোনাম

চাপের মুখে ইসলামভীতির বিরুদ্ধে লড়াই করার ঘোষণা বাইডেনের

বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ২, ২০২৩

প্রিন্ট করুন

সিএন প্রতিবেদন: গাজায় মুসলিম নিধনে সমর্থন জুগিয়ে আমেরিকানদের চাপের মুখে পড়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বাইডেনকে মুসলিম আমেরিকানদের ভোট না দেওয়ার কথাও শোনা যাচ্ছে জোরেশোরে। এমন পরিস্থিতিতে ইসলামভীতির বিরুদ্ধে লড়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে হোয়াইট হাউস।

বুধবার হোয়াইট হাউস জানিয়েছে, ইসলামভীতি দূর করতে জাতীয় নীতি প্রণয়ন করা হবে। এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের প্রেস সেক্রেটারি ও মুখপাত্র ক্যাথরিন জ্যঁ-পিয়েরে।

তিনি বলেন, ‘জাতির মূল্যবোধকে পুনঃপ্রতিষ্ঠিত করতেই প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন নির্বাচনে অংশ নিয়েছিলেন। সেই প্রচারাভিযানে তিনি বারবার বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রে কারও বিরুদ্ধে ঘৃণার কোনো স্থান নেই। নিজের দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনেও এই নীতি তিনি মেনে চলেছেন।’

ক্যাথরিন জ্যঁ-পিয়েরে আরও বলেন, ‘বহু বছর ধরে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত মুসলিমরা বিভিন্ন ক্ষেত্রে বৈষম্য ও ঘৃণার শিকার হচ্ছেন। সম্প্রতি তার মাত্রা আরও বাড়ছে। মধ্যপ্রাচ্যে সাম্প্রতিক যুদ্ধ পরিস্থিতিকে ঘিরে ইসলামভীতি ছড়িয়ে পড়ছে আমাদের দেশে। প্রেসিডেন্ট বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রে বাড়তে থাকা ইসলামভীতি ঠেকাতে একটি একটি কার্যকর কৌশল প্রণয়ন করা জরুরি। সে জন্য যুক্তরাষ্ট্রে মুসলিম নেতাদের সহযোগিতা প্রয়োজন। শিগগিরই তাদের সঙ্গে বৈঠকে বসবেন প্রেসিডেন্ট।’

তিনি বলেন, ‘আজকের ঘোষণা হল তারই সর্বশেষ পদক্ষেপ। যুক্তরাষ্ট্রে ইসলামভীতি, ইহুদি বিদ্বেষ এবং নানা ধরনের পক্ষপাতিত্ব ও বৈষম্য মোকাবিলার প্রচেষ্টা বৃদ্ধি এবং আরও ভালোভাবে সবকিছু সমন্বয় করার জন্য একটি আন্তঃসংস্থা প্রতিষ্ঠা করা হবে।’

ইসলামভীতি দূর করার প্রচেষ্টা শুরু করা হবে, এমন প্রত্যাশা ছিল গত কয়েক মাস ধরেই। গত মে মাসে ইহুদি বিদ্বেষ মোকাবিলার জন্য একটি জাতীয় কৌশল প্রণয়ন করেছে ওয়াশিংটন। সে সময় মুসলমানদের বিরুদ্ধে ঘৃণা মোকাবিলার দিকটিও উল্লেখ করা হয়েছিল। তবে গাজায় ইসরায়েল এবং হামাসের মধ্যে চলমান রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের প্রেক্ষিতে ওয়াশিংটনের এই পরিকল্পনা গতি লাভ করে।

সিএন/এমটি

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন