বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪

শিরোনাম

তাইওয়ানে নতুন করে ৪৪০ মিলিয়ন ডলারের অস্ত্র বিক্রি করবে যুক্তরাষ্ট্র

রবিবার, জুলাই ২, ২০২৩

প্রিন্ট করুন

ভার্জিনিয়া, যুক্তরাষ্ট্র: তাইওয়ানের নিকট নতুন করে ৪৪০ মিলিয়ন ডলারের অস্ত্র ও সামরিক সরঞ্জাম বিক্রির অনুমোদন দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। বিবৃতিতে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে পেন্টাগন। শুক্রবার (৩০ জুন) তাইওয়ানের কাছে অস্ত্র ও সামরিক সরঞ্জাম বিক্রির এ ঘোষণা দেয় যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দফতর।
বিবৃতিতে পেন্টাগন জানায়, দুটি চুক্তির আওতায় এ যুদ্ধাস্ত্র সরবরাহ করা হবে। অস্ত্র পাওয়ার পর তাইওয়ানের প্রতিরক্ষা সক্ষমতা উল্লেখযোগ্য মাত্রায় বেড়ে যাবে।

সাম্প্রতিক মাসগুলোতে যখন চীন ও তাইওয়ানের মধ্যে সামরিক উত্তেজনা সর্বোচ্চ পর্যায়ে ঠিক, তখন যুক্তরাষ্ট্র এ অস্ত্র সরবরাহ করার ঘোষণা দিল। নতুন চুক্তি অনুযায়ী, ৩৩২ দশমিক দুই মিলিয়ন ডলারের গোলাবারুদ থাকবে। আর ১০৮ মিলিয়ন ডলারের সামরিক সরঞ্জাম।

এ দিকে, যুক্তরাষ্ট্রকে নতুন করে হুঁশিয়ারি দিয়েছে চীন। তাইওয়ানের কাছে কোন ধরনের অস্ত্র বিক্রি না করতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে চীন। একইসাথে অঞ্চলটির সাথে সব সামরিক চুক্তি বাতিল করতে বলা হয়েছে।

চীন বলেছে, ‘তাইওয়ানের কাছে অস্ত্র বিক্রি বন্ধ করুন। তাইওয়ান প্রণালীতে নতুন করে উত্তেজনা তৈরি বন্ধ করুন।’

যদিও চীনের এমন হুঁশিয়ারি উপেক্ষা করেই তাইওয়ানের সাথে একের পর এক সামরিক চুক্তি করছে যুক্তরাষ্ট্র। এর আগে গত মার্চে তাইওয়ানের কাছে ৬১ কোটি ৯০ লাখ ডলারের এফ ১৬ যুদ্ধবিমানের গোলাবারুদ বিক্রির অনুমোদন দেয় যুক্তরাষ্ট্র।

চীন তাইওয়ানকে নিজের ভূখণ্ড বলে দাবি করে। পৃথিবীর বেশিরভাগ দেশ এ এক চীন নীতি মেনে চলে। যুক্তরাষ্ট্রও চীনের নীতির প্রতি অটুট থাকলেও তাইওয়ানের সাথে বিশেষ সম্পর্ক গড়ে তুলেছে। কেননা নিজেদের স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবেই দীর্ঘ দিন ধরে দাবি করে আসছে তাইওয়ান।

সিএন/এমএ

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন