রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪

শিরোনাম

নিউইয়র্কে আহলে বায়াত মহা সম্মেলন অনুষ্ঠিত

শনিবার, জুলাই ৮, ২০২৩

প্রিন্ট করুন

নিউইয়র্ক, যুক্তরাষ্ট্র: আহলে সুন্নাত আল জমাতের উদ্যোগে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে আহলে বায়াত মহা সম্মেলন বুধবার (৫ জুলাই) অনুষ্ঠিত হয়েছে। মুফতি সৈয়দ আনসারুল করিম আল আজহারীর সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি ছিলেন জ্যাকসন হাইটস বাংলাদেশী বিজনেস এসোসিয়েশনের সভাপতি গিয়াস আহমেদ। প্রধান আলোচক ছিলেন আল্লামা সাইয়্যেদ মোহাম্মদ শফিকুল ইছলাম। অতিথি আলোচক ছিলেন মুফতি আবদুল মালেক, মওলানা জোবায়ের আর রশিদ, ফায়েক উদ্দিন ও মোহাম্মদ শহিদুললাহ, আবদুল ওহিদ তুপন। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন মওলানা ওলিউল্লাহ আতিকুর রহমান।

সম্মেলনে বক্তারা বলেন, ‘কোরআন হাদিসে আহলে বাইতকে (নবী পরিবারকে) শক্ত করে ধরে রাখার ও তাদেরকে অনুসরণ করার নির্দেশ থাকলেও আমরা তা পালন করছি না। নবী (সা) বলেছেন, ‘‘আমি তোমাদের জন্য দুটি ভারি বস্তু রেখে যাচ্ছি; যাতে তোমরা পথভ্রষ্ট না হয়ে যাও। প্রথমটি হল কোরআন ও দ্বিতীয়টি হল আমার আহলে বাইত। এ দুটি বস্তু থেকে কখনো বিচ্ছিন্ন হবে না।’’ দুঃখজনক হলেও সত্যি যে, আহলে বাইতকে শক্ত করে ধরে রাখার নির্দেশনা থাকলেও তা পালন না করে তাদেরকে বরং হত্যা করা হয়েছে। আলী (রা), ইমাম হাসান (আ) ও ইমাম হোসেইনকে (আ) মুসলমান নামধারীরাই হত্যা করেছে। নবী পরিবারারকে হত্যা করে মুয়াবিয়া- ইয়াজিদ- মারওয়ান গং জোর করে ক্ষমতা দখল করে। সেই উমাইযা রাজদরবারে দরবারী আলেম ওলামা দিয়ে আহলে বাইত বিরোধী প্রচারণা চালানো হয়। এ দরবারী আলেম ওলামা আহলে বাইতের শত্রুদের পক্ষে অনেক ভুয়া হাদিস বর্ণনা করে ও আহলে বাইতের পক্ষের হাদিসগুলোকে অবজ্ঞা করে। সেই ধারাবাহিকতা এখনো মাদরাসাগুলোতে পড়ানো হয়।’

গিয়াস আহমেদ বলেন, ‘বর্তমান সমাজের বিখ্যাত আলেম ওলামারা আহলে বাইতের হাদিসগুলো জানেন না। আবার যারা জানে, তারা শিয়া তকমা গায়ে লাগবে বলে ভয়ে প্রচার করে না। বর্তমান মাদরাসাগুলোতেও আহলে বাইতের হাদিস পড়ানো হয় না। বরং, আহলে বাইতের শত্রুদের হাদিস বেশী করে পড়ানো হয়।’

তিনি আরো বলেন, ‘পৃথিবীতে কোটি কোটি আলেম, ওলামা, হাফেজ, মুফতি, আললামা ও মাওলানা থাকলেও মুসলমনাদের উপর আল্লাহর রহমত নেই। আগের দিনে আহলে বাইতের কদর সমমান ছিল, মিলাদ, কেয়াম, দরুদ ছিল, ওলি আওলিয়াদের সম্মান ছিল। ফলে, মুসলমনাদের উপর আল্লাহর রহমত ছিল। অর্ধেক দুনিয়া মুসলমানরা দাপটের সাথে শাসন করেছে। আর এখন গরু খাওয়ার সন্দেহে মুসলমান হত্যা করা হচ্ছে। কোন বিচার নেই। ইসলামের শত্রুদের আক্রমণ ও নিজেদের মধ্যে গৃহযুদ্ধে আজ আরব বিশ্ব ধংসযজ্ঞে পরিণত হয়েছে। ফিলিস্তিনে প্রতি দিন মুসলমান হত্যা করা হচ্ছে। সেই দিকে আলেম, ওলামা ও বিশ্ব নেতাদের কোন প্রতিবাদ নেই। আলেম ওলামারা নিজেরদের মধ্যেই বিভিন্ন ফেৎনা ও ফেসাদে লিপ্ত।’

এ সময় প্রতি বছর আহলে বাইতের সম্মেলন হবে বলে গিয়াস আহমেদ ঘোষণা দেন।

সম্মেলনে মাওলানা মাহমুদ, আলআমিন মসজিদের সভাপতি জয়নুল আবেদীন, আহলে বাইত মসজিদের সহ সভাপতি সৈয়দ আশরাফ আলী ও সাধারণ সম্পাদক শওকাত আনোয়ার উপস্থিত ছিলেন।

সিএন/এমএ

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন