শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪

শিরোনাম

নিউইয়র্কে ভিন্ন ভিন্ন আয়োজনে জিয়াউর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

সোমবার, জুন ৩, ২০২৪

প্রিন্ট করুন

সিএন প্রতিবেদন: যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে যথাযোগ্য মর্যাদায় সাবেক রাষ্ট্রপতি ও বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ৪৩তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৩০ মে) আরাফাত রহমান কোকো স্মৃতি সংসদ, জ্যাকসন হাইটস এলাকাবাসী, যুক্তরাষ্ট্র নিউইয়র্ক স্টেট বিএনপির উদ্যোগে জিয়াউর রহমানের স্মরণে মিলাদ মাহফিল, দোয়া-মোনাজাত, আলোচনা সভা ও তবারক বিতরণ করা হয়।

জ্যাকসন হাইটসে ডাইভার্সিটি প্লাজায় স্টেট বিএনপির সভাপতি মওলানা অলিঊল্লাহ আতিকুর রহমানের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক সাঈদুর রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রয়াত এ রাষ্ট্রপতির জীবন-কর্ম নিয়ে উদ্বোধনী বক্তব্য রাখেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির অন্যতম সদস্য ও মূলধারার রাজনীতিক গিয়াস আহমেদ।

তিনি বলেন, বহুজাতিক গণতন্ত্রের প্রবক্তা জিয়াউর রহমানের বিস্ময়কর নেতৃত্বে পঁচাত্তর পরবর্তীতে একদলীয় স্বৈরশাসনের কবল থেকে জাতি মুক্তিলাভ করেছিল। বর্তমানে পুনরায় নব্য স্বৈরাচারের কবলে নিপতিত হয়েছে বাংলাদেশ ও গণতন্ত্র। এ অবস্থার অবসান ঘটিয়ে বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে আবারো বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক সরকার পুনপ্রতিষ্ঠার করতে হবে।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আলহাজ্ব আব্দুল লতিফ সম্রাট। বিশেষ অতিথি ছিলেন জিল্লুর রহমান জিল্লু। প্রধান বক্তা ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা কামাল পাশা বাবুল। স্বাগত বক্তব্য রাখেন নিউইয়র্ক স্টেট বিএনপির সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট জসিম উদ্দিন ভিপি।

বিশেষ অতিথির মধ্যে আলোচনায় আরও অংশ নেন যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক যুগ্ম সম্পাদক গোলাম ফারুক শাহীন, যুবদলের সাবেক কেন্দ্রীয় নেতা এম এ বাতিন, বিএনপি নেতা কাজী আসাদুল্লাহ, স্টেট বিএনপির সিনিয়র জয়েন্ট সেক্রেটারি মো আরিফুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক রইচ উদ্দিন, নিউইয়র্ক মহানগর উত্তর বিএনপির সভাপতি আহবাব চৌধুরী খোকন এবং সাধারন সম্পাদক ফয়েজ চৌধুরী, শাহাদৎবার্ষিকী সমাবেশের আহবায়ক আমিনুল ইসলাম চৌধুরী, সদস্য সচিব দেওয়ান কাউসার, যুগ্ম আহবায়ক মো আশরাফ হোসেন, প্রধান সমন্বয়কারী হুমায়ুন কবীর, সমন্বয়কারী মাইনুল করিম টিপু, যুগ্ম সদস্য সচিব এম এ কাইয়ুম প্রমুখ।

নেতৃবৃন্দের মধ্যে আরও ছিলেন ওয়াহেদ আলী মন্ডল, আনিসুর রহমান, মনির হোসেন, আনোয়ার হোসেন, মীর মশিউর রহমান, এ আর মাহবুব চেয়ারম্যান, জাফর তালুকদার, জিয়াউল হক মিশন প্রমুখ।

স্টেট বিএনপির সভাপতি মাওলানা অলিঊল্লাহ আতিকুর রহমানের নেতৃত্বে আলোচনা সমাবেশের পরই জিয়াউর রহমানের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত এবং বেগম খালেদা জিয়ার সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করে বিশেষ মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়। এরপর হাজারো প্রবাসী ও বিএনপির নেতা-কর্মীদের মাঝে তবারক বিতরণ করা হয়।

একইদিন দুপুরে বাংলাদেশ স্ট্রিটে একটি পার্টি হলের সামনে ‘জ্যাকসন হাইটস এলাকাবাসী’র ব্যানারে প্রতিবছরের ন্যায় এবারও জিয়াউর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া-মোনাজাত ও তবারক বিতরণের কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। এতে বক্তব্য দেন বিএনপি নেতা গিয়াস আহমেদ, যুক্তরাষ্ট্র জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক আসেফ বারি টুটুল, মূলধারার রাজনীতিক ফাহাদ সোলায়মান, যুক্তরাষ্ট্র যুবদলের সদ্য বিদায়ী সভাপতি ও রিয়েল এস্টেট ব্যবসায়ী জাকির এইচ চৌধুরী, যুবদল নেতা আমানুল্লাহ আমান প্রমুখ।

এছাড়াও প্রয়াত প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকীতে বিএনপি এবং বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা ভিন্ন ভিন্ন ব্যানারে আলাদা কর্মসূচি পালন করেন। এসময় নেতাকর্মীরা বিএনপি প্রতিষ্ঠাতার বর্ণাঢ্য জীবনের স্মৃতিচারণ করেন।

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের (বিএনপি) প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান ১৯৩৬ সালের ১৯ জানুয়ারি বগুড়ার গাবতলীতে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সেক্টর কমান্ডার ও জেড ফোর্সের অধিনায়ক ছিলেন। ১৯৭৭ সালের ২১ এপ্রিল রাষ্ট্রপতি হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন তিনি। ১৯৮১ সালের ৩০ মে চট্টগ্রামে একদল বিপথগামী সেনাসদস্যের হাতে সাবেক এ প্রেসিডেন্ট হত্যাকাণ্ডের শিকার হন।

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন