রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪

শিরোনাম

নিউইয়র্কে ৫৭ সেনা কর্মকর্তার প্রতি শ্রদ্ধাজ্ঞাপন

বুধবার, ফেব্রুয়ারী ২৮, ২০২৪

প্রিন্ট করুন

সিএন প্রতিবেদন: পিলখানায় বিডিআর বিদ্রোহে হত্যাকাণ্ডের শিকার ৫৭ সেনা কর্মকর্তার আত্মার মাগফেরাত কামনায় স্মৃতিচারণ ও বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে ‘উই আর দি পিপল’ সংগঠন। এসময় অনুষ্ঠান থেকে ভারতীয় পন্য বর্জন করার আহ্বান জানানো হয়।

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা সাতটায় নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসের কাবাব কিং রেস্টুরেন্টে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, ক্ষমতাকে কুক্ষিগত করার জন্য শেখ হাসিনা ও ভারতের যোগসাজশে ৫৭ জন সেনা কর্মকর্তাকে হত্যা করা হয়েছে। যার বিচার দীর্ঘ ১৫ বছরেরও সম্পন্ন হয়নি। যেমনটি হয় নাই সাংবাদিক সাগর-রুনি হত্যাকান্ডের বিচারও।

বক্তারা আরও বলেন, দেশের সামরিক শক্তিকে দুর্বল করতে বেছে বেছে চৌকস সেনাদের সেদিন হত্যা করা হয়েছে। এটা সম্পূর্ণ পূর্ব পরিকল্পিত ঘটনা। মিটিং ডেকে এ হত্যাকান্ড ঘটানো হয়। পরবর্তীতে হত্যাকারীদের পালিয়ে যেতে সুযোগ করে দেওয়া হয়। এতে সহযোগিতা করেন আওয়ামী লীগের বেশ কয়েকজন নেতা।

বক্তারা বলেন, আমরা এখন এমন একটা সময়ে এসেছি যখন ৫৭ জন চৌকস সেনা হত্যাকাণ্ড নিয়ে কেউ কোনো কথাই বলছে না। এসব সেনাদের কেউ স্মরণই করছে না। সেনা হত্যাকান্ড নিয়ে দুই একজন অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা কথা বললেও সেগুলো চর্বিত চর্বন।

বক্তারা আরও বলেন, আমরা শক্তিধর রাষ্ট্রসমূহের দিকে তাকিয়ে ছিলাম। আমরা ভেবেছিলাম তারা স্যাংশন দিবে। কিন্তু তারা তা করেনি। এ থেকে আমাদের শিক্ষা নিতে হবে। অন্য দেশের দিকে তাকিয়ে না থেকে আমাদের ভাগ্য আমাদেরকেই নির্ধারণ করতে হবে। তার জন্য দল-মত নির্বিশেষে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে মাঠে নামতে হবে। দেশকে বাঁচাতে এর কোন বিকল্প নেই।

এসময় বক্তারা ভারতীয় পণ্য বর্জন করতে উদাত্ত আহ্বান জানান। পাশাপাশি পন্য বর্জনে স্লোগান দিতে থাকেন।

সংগঠনের চেয়ারম্যান জ্যাকব মিল্টনের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের এটর্নী মিয়ালী, এটর্নী ফেলন, মি. কামাল, শরাফত হোসেন, নীরা রব্বানী, টিটো রহমান, রিনা আবেদীন, নাজমুস সাকিব প্রমুখ।

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন