রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪

শিরোনাম

ফিলিপাইনের নতুন প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিলেন বংবং

শনিবার, জুলাই ২, ২০২২

প্রিন্ট করুন

চলমান নিউইয়র্ক ডেস্ক : ফিলিপাইনে নতুন প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিয়েছেন সাড়ে তিন দশক আগে ক্ষমতাচ্যুত স্বৈরশাসক ফের্দিনান্দ মার্কোসের ছেলে ফের্দিনান্দ মার্কোস জুনিয়ার; বংবং নামেই যিনি বেশি পরিচিত। বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় মধ্য দুপুরে ম্যানিলার জাতীয় জাদুঘরে জাঁকজমকপূর্ণ এক অনুষ্ঠানে মার্কোস জুনিয়র শপথ নেন বলে বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

তিনি দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার এই দেশটির প্রয়াত স্বৈরশাসক ফার্দিনান্দ মার্কোসের ছেলে। সর্বশেষ নির্বাচনে প্রায় ৬০ শতাংশ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন তিনি। মার্কোস জুনিয়রের এই অভিষেক মার্কোস রাজনৈতিক পরিবারের জন্য এক বিস্ময়কর প্রত্যাবর্তনের প্রতীক। ১৯৮৬ সালে গণবিক্ষোভে ক্ষমতাচ্যুত হয়েছিলেন তার বাবা ফার্দিনান্দ মার্কোস।

পরে বৃহস্পতিবার (৩০ জুন) কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে রাজধানী ম্যানিলায় ফিলিপাইনের নতুন প্রেসিডেন্ট হিসেবে শহপথ নেন ‘বংবং’ নামে পরিচিত এই রাজনীতিক। বৃহস্পতিবার এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম।

স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার দুপুরে ম্যানিলার জাতীয় জাদুঘরে এক আড়ম্বরপূর্ণ অনুষ্ঠানে দেশি-বিদেশি শতাধিক প্রতিনিধি এবং সাংবাদিকের উপস্থিতিতে শপথ নেন বংবং। তার শপথ অনুষ্ঠানে উপস্থিত বিদেশি ব্যক্তিদের মধ্যে চীনের ভাইস প্রেসিডেন্ট ওয়াং খিশান এবং যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসের স্বামী ডগলাস এমহফ রয়েছেন।

চলতি বছর মে মাসে ফিলিপাইনে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে বিরল ভূমিধ্বস বিজয় অর্জন করেন বংবং। হারিয়ে দেন নিজ দেশে সময়ের আলোচিত প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতের্তেকে। নির্বাচনে জয় পেতে বংবং তার পরিবারের ভাবমূর্তিকে পরিবর্তন করেছিলেন বলে মন্তব্যে করেছিলেন সমালোচকরা।

নতুন প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেওয়ার পর জনগণের উদ্দেশে বংবং বলেন, দেশের সব নাগরিক যাতে উপকৃত হন, তেমন পদক্ষেপ নেওয়া হবে। এবং এটিই আমার পক্ষ থেকে ফিলিপাইনের গণতন্ত্রের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় নির্বাচনী ম্যান্ডেট। এসময় ভোটারদের অভিনন্দন ও ধন্যবাদ জানান তিনি।

এফআইটি/সিএন

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন