শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪

শিরোনাম

বউ পিটিয়ে ফের জেল হাজতে সোবহান

বৃহস্পতিবার, জুন ২০, ২০২৪

প্রিন্ট করুন

উত্তর আমেরিকা অফিস: যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে স্ত্রীর গায়ে হাত তোলা, অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও ভাংচুরের অভিযোগে ২য় বারের মতো জেল হাজতে গেলো শাহ সোবহান সোহাগ নামের এক বাংলাদেশী ইয়োলো ক্যাব চালক। ডিবি লটারির মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট আসার পর ২০১৪ সালে স্ত্রীর একই অভিযোগে প্রথমবার হাজতে যেতে হয়েছিলো কুমিল্লা জেলার চাঁদপুরের সোবহান সোহাগকে। সোবহান ২০০২ সালে ডিবি লটারির মাধ্যমে  আসেন আমেরিকায় ।

শাহ সোবাহান ২০১২ সালে স্ত্রীকে যুক্তরাষ্ট্রে নিয়ে আসার ঠিক দুবছর পর স্ত্রীকে নির্যাতনের অভিযোগে তাকে জেল হাজতে যেতে হয়। তার ঠিক ১২ বছর পর আবারও ঘটলো একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি। সোবহানের  স্ত্রীর অভিযোগ, সাম্প্রতিককালে তার স্বামী নোয়াখালীর ফারিন নিখাদ নামের এক তরুণীর প্রেমে পড়েছেন।  সেখান থেকেই শুরু দাম্পত্য কলহ। ওই তরুণীর প্ররোচনায় সোবহান তার বিবাহিত স্ত্রীকে ডিভোর্স দেয়ার হুমকি, যুক্তরাষ্ট্র থেকে বের করে দেয়ার হুমকি-ধমকি উপর্যপুরি হত্যার হুমকি দিতে থাকার এক পর্যায়ে বাসায় তার তিন সন্তানের সামনে তাকে মারধর ও বাসায় ভাংচুর করে।  এ ঘটনায় সোবহানের স্ত্রী ডোমেস্টিক ভায়োলেন্সে অভিযোগ করলে সেখান থেকে তারা তার অভিযোগের বিবরণ শুনে পুলিশ পাঠায়। এরপর নিউইয়র্ক পুলিশ সোবহানকে শনিবার দিবাগত রাতে (১৬ জুন)  নিজের বাসা থেকে আটক করে হাজতে নিয়ে যায়।  

জানা গেছে, নোয়াখালীর তরুণী ফারিন নিখাদ ভ্রমণ ভিসায় পরিবারের সাথে নিউইয়র্কে আসেন। পরবর্তীতে  ম্যানহাটনের ২৭ স্ট্রিটে একটি রেষ্টুরেন্টে চাকরি নেন। এরই মধ্যে ইয়োলো ক্যাব চালক সোবহানের সাথে তরুণীর সাথে পরিচয় ও একপর্যায়ে সে পরিচয় ঘনিষ্ট মেলামেশায় গিয়ে ঠেকে।  

সোবহানের স্ত্রী আরও অভিযোগ করেন, ২০১৪ সালের ঘটনার পর সবকিছু স্বাভাবিক হয়ে আসলেও নোয়াখালীর ওই মেয়ের সাথে অনৈতিক সম্পর্কে জড়ানের পর থেকে তার স্বামীর আচরণগত পরিবর্তন ঘটে। অযথা রাগারাগি, ঝগড়া-ঝাটি, মেজাজ দেখানো, বাসায় ফেরায় অনিয়ম ও জুয়া খেলায় আসক্ত হয়ে পড়লে তার উপর নজরদারি বাড়ালে তখন বিভিন্ন রেস্টুরেন্টে তাকে নোয়াখালীর তরুণীর সাথে ঘনিষ্ট মেলামেশা করতে দেখা যায়। কয়েকবার গাড়ির পেছনের সিটে তাদের অসংলগ্ন অবস্থায় দেখতে পান বলেও অভিযোগ করেন তার স্ত্রী। এরপর সেসবের প্রতিবাদ করলে সর্বশেষ সোবহান স্ত্রীর গায়ে হাত তুলেন।  

সোবাহানের সাথে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়া ওই মেয়ের মা বাবার সাথে যোগাযোগ করে মেয়েকে শাসনের কথা বললে তারাও এতে উল্টো প্রতিক্রিয়া দেখায় বলে জানায় সোবহানের স্ত্রী। এদিকে সোবাহান নোয়াখালীর তরুণীর সাথে সখ্যতার পর থেকে স্ত্রী ও তিন সন্তানের বাড়িভাড়া ও খাবারদাবারের খরচ দেয়া বন্ধ করে দেয় বলেও অভিযোগ স্ত্রীর।

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন