রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪

শিরোনাম

বন্ধ হতে শুরু করেছে গর্ভপাত ক্লিনিকগুলো

মঙ্গলবার, জুন ২৮, ২০২২

প্রিন্ট করুন

চলমান নিউইয়র্ক ডেস্ক: সুপ্রিম কোর্ট গর্ভপাতের সাংবিধানিক অধিকার বাতিল করে রায় দেয়ার পর আমেরিকার বিভিন্ন অঙ্গ রাজ্যের ক্লিনিকগুলো বন্ধ করা শুরু হয়েছে। খবর বিবিসির।

আমেরিকার ১৩টি রাজ্য আগে থেকেই গর্ভপাতকে অপরাধ হিসাবে গণ্য করতে আইন ও সংবিধান সংশোধনের মত পদক্ষেপ নিয়েছিল। সুপ্রিম কোর্টের এ রায়ের ফলে সেগুলো আপনা থেকেই গর্ভপাত নিষিদ্ধে কার্যকর হয়ে যাবে। অন্য আরো অনেক রাজ্য শিগগিরই নতুন আইন পাস করবে।

রায়টি সুপ্রিম কোর্টের ওয়েবসাইটে পোস্ট হওয়ার পরপর আরকানসাস রাজ্যের একটি গর্ভপাত ক্লিনিক বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। আগে থেকে সাক্ষাতের সময় নিয়ে রাখা নারীদের ফোন করে ক্লিনিক বন্ধের বিষয়টি জানিয়ে দেয়া হয়। ক্লিনিক বন্ধের একই চিত্র দেখা গেছে, নিউ অরলিয়েন্স ও লুইজিয়ানাতে।

৫০ বছর আগে ‘রো বনাম ওয়েড’ মামলায় শীর্ষ আদালত বলেছিল, ‘সরকারের গর্ভপাত নিষিদ্ধ করার মত যথেষ্ট ক্ষমতা নেই। একজন নারীর গর্ভপাতের অধিকার সংবিধানে সুরক্ষিত আছে।’

শুক্রবার (২৫ জুন) মিসিসিপি রাজ্যের গর্ভপাত নিষিদ্ধের পদক্ষেপকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে একটি সংস্থার করা মামলার রায়ে পাঁচ দশক আগের রায়কে বদলে দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট।

গর্ভপাতের সাংবিধানিক অধিকার বাতিল করে দিয়ে শীর্ষ আদালত জানিয়েছে, গর্ভপাতের অনুমোদন দেয়া বা না দেয়ার সিদ্ধান্তের ক্ষমতা প্রতিটি অঙ্গরাজ্যের।

গুটমাখের ইনস্টিটিউট নামের ব্যক্তিগত অভিমতের পক্ষাবলম্বী এক গবেষণা সংস্থার অনুমান, রো বনাম ওয়েড এর রায় প্রত্যাহার করায় এখন মূলত দক্ষিণাঞ্চল ও মধ্য-পশ্চিমাঞ্চলের ২৬টি অঙ্গরাজ্য গর্ভপাত নিষিদ্ধ ঘোষণা করবে। এর ফলে লাখ লাখ নারী বাধ্য হবে গর্ভপাত করাতে- এমন কোন অঙ্গরাজ্যে সফর করতে, যেখানে গর্ভপাতের অধিকার রক্ষা করা হয়েছে।

মিসিসিপি অঙ্গরাজ্যের এক আইন বিষয়ে করা মামলায় সুপ্রিম কোর্ট এমন রায় দিল। ওই আইনে গর্ভধারণের ১৫তম সপ্তাহের পর থেকে সব গর্ভপাতকে নিষিদ্ধ করা হয়। এ সময়সীমাটি রো বনাম ওয়েড এর রায়ের আওতায় দেয়া সময়সীমার থেকে কয়েক সপ্তাহ কম।

সিএন/এমএ

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন