রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪

শিরোনাম

বাংলাদেশসহ অর্ধশতাধিক দেশের অংশগ্রহণে ৪১তম লোটাস ফেস্টিভ্যাল অনুষ্ঠিত

বুধবার, জুলাই ১৩, ২০২২

প্রিন্ট করুন

চলমান নিউইয়র্ক ডেস্ক: লস অ্যাঞ্জেলেসে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল বিভিন্ন দেশের সংস্কৃতির উৎসব ৪১তম লোটাস ফেস্টিভ্যাল। করোনা ভাইরাসের বিধিনিষেধে দুই বছর পর বাংলাদেশ ও ভারতস অর্ধশতাধিক দেশের লাখের অধিক দর্শক অংশ নিয়েছেন দুই দিনের এ উৎসবে।

পদ্মফল বা আর লোটাসের নামেই প্রতি বছর নান্দনিক এ শহরের ইকো পার্কে অনুষ্ঠিত হয় লোটাস ফেস্টিভ্যাল। সরকারি ও দাতাদের অর্থায়নে ৪১ বছর ধরে একই সময় ৯ ও ১০ জুলাই অনুষ্ঠিত হয় এ উৎসব। বিভিন্ন দেশের ইতিহাস, ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি তুলে ধরতে আমেরিকার সরকারের রিক্রিয়েশন ও পার্কস দফতর আয়োজন করে থাকে এ সাংস্কৃতিক উৎসব।

লস অ্যাঞ্জেলেস সিটির প্রিন্সিপল রিক্রিয়েশন সুপারভাইজার সিনাইয়ের স্টোনহাম বলেন, ‘এটি একটি অবিশ্বাস্য বার্ষিক উৎসব।’

অর্ধশতাধিক দেশ অংশ নেয় এ উৎসবে। প্রতি বছর একটি দেশকে নির্ধারণ করা হয় হোস্ট কান্ট্রি হিসেবে। এবারের উৎসবের হোস্ট কাউন্ট্রি ভারত। স্বাগতিক দেশ হিসেবে এ আয়োজনে ভারত উদ্‌যাপন করে তাদের ৭৫তম স্বাধীনতা উৎসব।

ভারতের কনসাল জেনারেল টিভি নগেন্দ্র প্রসাদ বলেন, ‘আমি ধন্যবাদ জানাতে চাই, নগর কর্তৃপক্ষ ও পার্ক কর্তৃপক্ষকে ভারতকে এমন একটা উৎসবে অংশ নেয়ার সুযোগ করে দেয়ার জন্য।’

উৎসবে অংশ নেয় বাংলাদেশও। অনুষ্ঠানে শিল্পীদের নৃত্য, গান আর মাইম পরিবেশনা মুগ্ধ করে দেশি-বিদেশি দর্শকদের।

বাংলাদেশ কনস্যুলেটের কনসাল জেনারেল সামিয়া আঞ্জুম বলেন, ‘বিভিন্ন দেশের কমিউনিটির সদস্যদের ও বিভিন্ন দেশের কমিউনিটির সাথে এ আনন্দ ভাগ করে নিতে পেরে খুবই আনন্দ উপভোগ করছি।’

লোটাস ফেস্টিভ্যালের সহসভাপতি মোহাম্মদ আহসান বলেন, ‘করোনা ভাইরাসের পরই ফের লোটাস ফেস্টিভ্যালের ৪১তম অনুষ্ঠান আয়োজন হচ্ছে। আমরা পার্কে এটা উপভোগ করছি। উদ্বোধনী অনুষ্ঠান অনেক সুন্দর ছিল।’

উৎসবে নানা দেশের প্যাভিলিয়ন, শিশুদের আলাদা মঞ্চসহ বিভিন্ন বুথ থেকে কেনাকাটা ও তথ্য সংগ্রহ করেন আগত হাজারো দর্শক। ২০১৩ ও ২০১৭ সালে এ উৎসবের আয়োজক দেশ ছিল বাংলাদেশ।

সিএন/এমএ

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন