সোমবার, ২০ মে ২০২৪

শিরোনাম

বেটউইনার চুক্তি বাতিল না হলে সাকিবের সাথে কোন সম্পর্ক নেই

শুক্রবার, আগস্ট ১২, ২০২২

প্রিন্ট করুন

ঢাকা: বেটউইনার নিউজের সাথে চুক্তি বাতিল না করলে দেশ সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের সাথে সব সম্পর্ক বাতিল করার হুশিয়ারি দিয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

তিনি জানিয়েছেন, আশা করা হয়েছে, লিখিত আকারে নিজের সিদ্ধান্তের কথা জানাবেন সাকিব। তবে এখনো বোর্ডের সাথে যোগাযোগ করেন নি সাকিব।

বিসিবির কয়েকজন পরিচালকের সাথে বৈঠকের পর নিজের বেক্সিমকো অফিসে গণ মাধ্যমকে পাপন বলেন, ‘সাকিব চুক্তি বাতিল না করলে বিসিবির সাথে কোন সম্পর্ক থাকবে না তার।’

সাকিবের সাথে সম্পর্ক বাতিলের অর্থ হল বোর্ডের অধীনে কোন ধরনের ক্রিকেটের অংশ থাকবেন না এ অলরাউন্ডারের।

যদিও এ ধরনের বেটিং কোম্পানির সাথে চুক্তি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) বা এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল (এসিসি) দ্বারা নিষিদ্ধ নয়। তবে বাংলাদেশের আইন বেটিং কোম্পানির সাথে কোন ধরনের সম্পৃক্ততারও অনুমতি দেয় না। এমন কোম্পানির ওপর অভ্যন্তরীণ বাধা-নিষেধও রয়েছে বিসিবির।

মৌখিকভাবে কিছু পরিচালককে সাকিব জানিয়েছেন, যেহেতু আইসিসি এবং এসিসির এ ধরনের কোম্পানিতে কোন বাধা নেই, তাই তাদের সাথে একটি চুক্তি সই করেছেন। কিন্তু বেটউইনার কোম্পানির সাথে নয়, একটি ক্রিকেট নিউজ ওয়েবসাইট বেটউইনার নিউজের সাথে চুক্তিতে সই করেছেন সাকিব। যারা মূলত বেটিং ইস্যু নিয়ে কাজ করে। সূত্র বলছে, দশ কোটি টাকার চুক্তি করেছেন তিনি।

পাপন বলেন, ‘ব্যাপারটা সাকিবের, এখানে দ্বিতীয় চিন্তা করার কোন সুযোগ নেই। প্রথম থেকে যে অবস্থায় ছিল বিসিবি, এখনো তাই আছে। তখনই আমি বলেছিলাম, এ বিষয়ে জিরো টলারেন্স (বেটিং, গ্যাম্বেলিং)। যেভাবেই ব্যাখা করা হোক না কেন, বিসিবি তাদের কোনভাবেই মেনে নিবে না। এটি হওয়ার কোন সুযোগই নেই। যে কারণে আশরাফুলের মত খেলোয়াড়কেও আমাদের বাদ দিতে হয়েছে। তাই এ ধরনের কোম্পানির সাথে সম্পর্ক রাখলে কেউ ছাড় পাবে না। এখন সবকিছুই সাকিবের উপর নির্ভর করছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘বেটিংয়ের সাথে যুক্ত থাকলে, একজন ক্রিকেটারের সাথে কোন সম্পর্ক থাকবে না, এটা পরিস্কার। কোন সম্পর্ক থাকার প্রশ্নই আসে না। সেখান থেকে পুরোপুরি বেরিয়ে আসতে হবে। তার আগে কোন আলোচনা হবে না।’

এমনকি বিসিবি সভাপতি জানিয়েছেন, সাকিবের টেস্ট অধিনায়কত্বও কেড়ে নেয়া হবে।

তিনি বলেন, ‘যখন আমাদের দলেই থাকবেন না, তখন অধিনায়কত্বের প্রশ্নই আসে না। অধিনায়কত্ব পরের বিষয়। এ বিষয়ে আলোচনার কোন সুযোগ নেই। এ সিদ্ধান্তটি আগে নেয়া হয়েছিল ও আমরা আমাদের সিদ্ধান্ত নিয়ে খুবই পরিস্কার।’

পাপন আরো বলেন, ‘আমরা চিঠি দিয়েছি। আজই উত্তর পাওয়া উচিত ছিল। গতকালের মধ্যে দেয়ার কথা ছিল। শুনলাম, আজই দিবে। আমি অপেক্ষা করব ও তারপর সিদ্ধান্ত নিব, সে থাকবেন নাকি থাকবেন না।’

সাকিবের উত্তরের পরই এশিয়া কাপের দল ঘোষণা করা হবে। আর দুয়েক দিনের মধ্যে সাকিবের উত্তর না এলে দেশ সেরা অলরাউন্ডারকে ছাড়াই দেশের ক্রিকেট এগিয়ে যাবে বলে জানান বিসিবি সভাপতি।

সিএন/এমএ

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন