শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪

শিরোনাম

বেনজির কীভাবে সিঙ্গাপুরে গেলেন—প্রশ্ন ফখরুলের

শনিবার, জুন ১, ২০২৪

প্রিন্ট করুন

বিপুল পরিমাণ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ থাকার পরও পুলিশের সাবেক মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ ও তার পরিবারের সদস্যর কীভাবে দেশ ছাড়লেন, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেন, এই ঘটনা ‘অন্যায়কারীদের ছাড় দেওয়া হবে না’ ক্ষমতাসীন দলের নেতাদের এমন বক্তব্যকে নিছক লোকদেখানো ও প্রতারণা বলে প্রমাণ করে। শনিবার (১ জুন) এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

ফখরুল বলেন, ‘আমি একটি গণমাধ্যমে দেখলাম, বেনজীর (সাবেক আইজিপি) ও তার পরিবার ৪ মে দেশ ছেড়ে সিঙ্গাপুরে গেছেন। যাওয়ার আগে তিনি তার সব ব্যাংক হিসাব খালি করে প্রায় ৬০ কোটি টাকা উত্তোলন করেন। টাকার পরিমাণ আরও বেশি কিনা জানি না।’

বিএনপির এই নেতা আরও বলেন, ‘আমার প্রশ্ন, তিনি কীভাবে দেশ ছাড়লেন? সুতরাং তার সম্পদ বাজেয়াপ্ত ও ব্যাংক হিসাব জব্দ করার জন্য আদালতের আদেশ এবং তার বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশনের মামলা দায়েরের পদক্ষেপের তাৎপর্য কী? যখন তাকে বলা হলো তাকে কোথাও যেতে দেওয়া হবে না, তখন তিনি কীভাবে সরকারের নাকের ডগার উপর দিয়ে সিঙ্গাপুর গেলেন?’

তিনি বলেন, ক্ষমতাসীন দলের নেতারাও মন্তব্য করেছেন, দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। তিনি বলেন, ‘তারা (সরকার) কি মনে করেন সব মানুষই বোকা? বাংলাদেশের মানুষ অবিবেচক নয়, কারণ তারা বোঝে এগুলো আপনাদের লোকদেখানো ও প্রতারণা। আপনারা ছলচাতুরির আশ্রয় নিয়ে দেশ শাসন করছেন।’

বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ৪৩তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে জাতীয় প্রেস ক্লাবে বাংলাদেশ সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদ এই আলোচনা সভার আয়োজন করে।

ফখরুল বলেন, সরকার শুধু বেনজীর ও আজিজ আহমেদকে (সাবেক সেনাপ্রধান) লালন-পালনই করেনি, বরং অসংখ্য দুর্নীতিবাজকে প্রশ্রয় দিয়েছে।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ বাংলাদেশকে লুটপাটের নিরাপদ স্বর্গে পরিণত করেছে।

বিএনপি নেতা বলেন, ‘ আমাদের অবশ্যই এদের থেকে দেশকে রক্ষা করতে হবে। আমরা বিশ্বাস করি, বাংলাদেশের জনগণের সংগ্রাম ও লড়াইয়ের মাধ্যমে সর্বত্র ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়ে যাওয়া এই দানবকে আমরা পরাজিত করব, জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করব এবং সত্যিকারের গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করব।’

ফখরুল বলেন, বিএনপি অনেকগুলো বিরোধী দলের সঙ্গে ঐক্যবদ্ধ হয়ে দীর্ঘদিন ধরে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আন্দোলন চালিয়ে আসছে।

সংগ্রামে বিজয় ও সফলতা অর্জন করতে হবে উল্লেখ করে বিএনপির এই নেতা বলেন, জনগণের ভোটাধিকার ও গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার চূড়ান্ত লক্ষ্য থেকে বিএনপি কখনো পিছপা হবে না।

ফখরুল বলেন, ‘আমাদের লক্ষ্য অবিচল থাকবে। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে কৌশলগুলো পরিবর্তিত হতে পারে। আমরা আলোচনার মাধ্যমে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেব। আমরা তাদের সবাইকে সংগঠিত করার জন্য কঠোর পরিশ্রম করছি। আমরা বিশ্বাস করি, আমরা ব্যর্থ হইনি। আমরা আবার কাজ শুরু করেছি। ইনশাল্লাহ, বিজয় আমাদের হবে, আমরা সত্য ও ন্যায়ের পথে লড়াই করছি।’

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন