মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪

শিরোনাম

বেনের রজত জয়ন্তীতে বাংলাদেশী-আমেরিকান তিন বিশিষ্টজনকে সম্মাননা

বৃহস্পতিবার, জুলাই ২৭, ২০২৩

প্রিন্ট করুন

নিউইয়র্ক, যুক্তরাষ্ট্র: পথ চলার রজত জয়ন্তীতে তিনজন বাংলাদেশি আমেরিকান ব্যক্তিত্বকে সম্মাননা জানিয়েছে বাংলাদেশ এনভায়রনমেন্ট নেটওয়ার্ক (বেন)। শনিবার (২২ জুলাই) নিউইয়র্কে বেন এর ২৫ বছর পূর্তির অনুষ্ঠানে মানবসেবায় অবদানরাখায় প্রফেসর ডাক্তার মোহাম্মদ সাদুজ্জামান চৌধুরী, প্রফেসর এমবি জামান ও সৈয়দ টিপু সুলতানকে সম্মাননা জানানো হয়। এসব পেশাজীবী নীরবে কমিউনিটি, মানবতার সেবা ও দেশের জন্য নিবেদিতভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। যাদের নিয়ে নিয়ে আমেরিকায় স্বদেশীরা গর্ব করে থাকেন।

মোহাম্মদ সাদুজ্জামান চৌধুরী নিউইয়র্ক মেডিকেল কলেজের ইউরোলজি বিভাগের চেয়ারম্যান ও প্রোগ্রাম ডিরেক্টরের দায়িত্বে আছেন। গেল ৪০ বছর প্রবাসের অনেক হাই প্রোফাইল মানুষের চিকিৎসা করা ছাড়াও অসংখ্য চিকিৎসককে তিনি প্রশিক্ষণ দিয়েছেন। তার প্রশিক্ষণের বিস্তৃতি আমেরিকা থেকে বাংলাদেশ পর্যন্ত বিস্তৃত। আমেরিকার শত শত পেশাজীবী চিকিৎসককে প্রশিক্ষণ দিয়ে তিনি সম্মানজনক পদক পেয়েছেন। ব্যস্ততার মধ্যেও ডাক্তার সাদুজ্জামান চৌধুরী বছরে দুই বার বাংলাদেশ সফর করেন। তিনি বহু বছর ধরে বাংলাদেশের চিকিৎসকদের ইউরোলজি বিষয়ে আধুনিক চিকিৎসা ব্যবস্থার প্রশিক্ষণ দিয়ে আসছেন। দেশ থেকে চিকিৎসকদের আমেরিকায় নিয়ে এসে এখনকার ইউরোলোজি চিকিৎসা সম্পর্কে অভিজ্ঞতা অর্জনের সুযোগ করে দিয়েছেন। এরসবই তিনি করছেন নিজের উদ্যোগে ও নীরবে। যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশের চিকিৎসক সমাজের কাছে মোহাম্মদ সাদুজ্জামান একজন শ্রদ্ধেয় ও সমীহের নাম।

প্রফেসর এমবি জামান নিউইয়র্ক মেডিকেল কলেজের প্যাথলজি বিভাগের সাবেক প্রোগ্রাম ডিরেক্টর। আমেরিকায় ও বাংলাদেশে এ চিকিৎসককে সম্মানের সাথে দেখা হয় তার কাজের জন্য। গেল চার দশকের বেশি সময় থেকে এমবি জামান আমেরিকার শত শত চিকিৎসককে প্রশিক্ষণ দিয়েছেন। প্যাথলজি চিকিৎসার বৈপ্লবিক পরিবর্তন ও ক্যান্সার রোগের সনাক্তকরণ নিয়ে বাংলাদেশের চিকিৎসকদেরও তিনি প্রশিক্ষণ দিয়ে আসছেন। সম্পূর্ন স্বউদ্যোগে এমন কাজে তিনি নিয়োজিত আছেন। গেল ২০ বছর ধরে প্রফেসর এমবি জামান নিয়মিত বাংলাদেশে সফর করছেন ও বাংলাদেশি চিকিৎসকদের হাতেকলমে প্রশিক্ষণ দিয়ে আসছেন। এছাড়াও, বাংলাদেশ থেকে শত শত প্যাথলজিস্টকে আমেরিকায় নিয়ে আসা ও আমেরিকার চিকিৎসার আধুনিক ব্যবস্থা সম্পর্কে সরাসরি অভিজ্ঞতা লাভের সুযোগ সৃষ্টিতে অনন্য ভূমিকা পালন করে আসছেন এমবি জামান।

ফার্মাসিস্ট হয়েও একজন পরিবেশযোদ্ধা হিসেবে পরিচিত সৈয়দ টিপু সুলতান। সীমান্তে বাঁধ নির্মাণ ও পানি সংকট নিয়ে টিপু সুলতান সক্রিয় সংগঠক হিসেবে দীর্ঘ দিন থেকে সোচ্চার রয়েছেন। নিউইয়র্কে বসবাস করা সৈয়দ টিপু সুলতান নিজের তহবিলে বাংলাদেশে গড়ে তুলেছেন একটি অনুকরণীয় প্রতিষ্ঠান। যেখানে ভেষজ বাগানসহ কৃষি গবেষণা কেন্দ্র রয়েছে। রয়েছে চিকিৎসা কাজে ব্যবহৃত বৃক্ষের গুরুত্বপূর্ণ সংগ্রহ। অলাভজনক এবং প্রতিরোধমূলক ও উপশমকারী স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্র। নিজস্ব তহবিল দিয়ে বাংলাদেশে নিজের গ্রামে টিপু সুলতান গড়ে তুলেছেন অনন্য একটি প্রতিষ্টান। নিয়মিত দেশে যাতায়াত করেন প্রতিষ্ঠানটির সেবা ও কার্যক্রম নিশ্চিত করতে। দেশের বাইরে থেকেও নিজের গ্রামে, নিজের দেশে এমন প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলার মাধ্যমে অন্যন্য দৃষ্ঠান্ত স্থাপন করেছে ফার্মাসিস্ট সৈয়দ টিপু সুলতান।

পেশা ও নিজের কাজের শীর্ষে অবস্থান করেও দেশ ও মানবতার কাজে নিবেদিত এসব প্রচারবিমুখ ব্যক্তিকে বেনের সম্মাননা প্রদান ইতিবাচক পদক্ষেপ বলছেন প্রবাসী সংগঠকরা। তাদের মতে, ভাল কাজের এমন সম্মান-স্বীকৃতিতে অন্যরাও অনুপ্রেরণা পাবেন।

সিএন/এমএ

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন