শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪

শিরোনাম

ব্রিকসে যোগ দিতে মিয়ানমারেে জোরালো কূটনৈতিক তৎপরতা

শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ৮, ২০২৩

প্রিন্ট করুন

সিএন প্রতিবেদন: সামরিক অভ্যুত্থানে জর্জরিত মিয়ানমারের অর্থনীতি যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও পশ্চিমা বিশ্বের নিষেধাজ্ঞায় প্রায় মুখ থুবড়ে পড়েছে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে দেশটি পুরোনো মিত্র চীন, রাশিয়া ও ভারতের জোট ব্রিকসে যোগ দিতে আগ্রহী হয়ে উঠেছে। চালাচ্ছে জোরালো কূটনৈতিক তৎপরতা।

ব্রিকস মূলত ব্রাজিল, রাশিয়া, ভারত, চীন ও দক্ষিণ আফ্রিকার অর্থনৈতিক জোট। তবে সম্প্রতি দক্ষিণ আফ্রিকার জোহানেসবার্গে অনুষ্ঠিত হয়ে যাওয়া জোটের শীর্ষ সম্মেলনে আর্জেন্টিনা, ইথিওপিয়া, সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও মিসরকে নতুন সদস্য হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়। তবে সে সময় মিয়ানমার জোটে ঠাঁই পায়নি।

গত ১ সেপ্টেম্বর ব্রাজিলে নিয়োজিত মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত উ অং কিয়াও জ্যান ব্রিকসে নিযুক্ত ব্রাজিলের আন্তঃআঞ্চলিক প্রক্রিয়ার সমন্বয়কারীর সঙ্গে বৈঠক। বৈঠকে তিনি ব্রিকস ও নিউ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকে যোগদানের পদ্ধতি এবং প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে জানতে চান। মিয়ানমারের জান্তা সরকারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ও জানিয়েছে, গত আগস্ট মাসে হয়ে যাওয়া ব্রিকস সম্মেলনে জোটটি সম্প্রসারণের নীতি গ্রহণ করায় মিয়ানমার জোটে যোগদানে আগ্রহী। এ নিয়ে ব্রিকসের সদস্য দেশগুলোর সঙ্গে কূটনৈতিক তৎপরতা চালিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

ব্রিকসে যোগদানের বিষয়টি মাথায় রেখে মিয়ানমারের জান্তা সরকার জোটের মূল সদস্য রাশিয়া, চীন ও ভারতের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। পর্যবেক্ষকেরা বলছেন, বাজেট ঘাটতি মেটাতে জান্তা সরকার কেবল ব্রিকস নয়, জোটের আর্থিক প্রতিষ্ঠান নিউ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকে যোগ দিতেও আগ্রহী।

সিএন/এমটি

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন