সোমবার, ২০ মে ২০২৪

শিরোনাম

যুক্তরাষ্টের এবারের সামরিক সহায়তা ইউক্রেনকে জয়ী করবে

মঙ্গলবার, মে ১৪, ২০২৪

প্রিন্ট করুন

কিয়েভ, ইউক্রেন: রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধে কিয়েভকে সহায়তার জন্য ওয়াশিংটনের একটি সামরিক সহায়তা প্যাকেজ দ্রুত দেশটিতে পৌঁছাবে ও সেটি তাদেরকে সাফল্য এনে দেবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন। মঙ্গলবার (১৪ মে) আচমকা সফরে ইউক্রেনে পৌঁছে তিনি এ কথা জানান। সংবাদ আল জাজিরার।

কিয়েভে প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির সাথে দেখা করে ব্লিঙ্কেন বলেন, ‘এবারের অস্ত্র সহায়তা ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধে সত্যিকারের একটা পার্থক্য তৈরি করবে।’

এর পূর্বে, কিয়েভের সাথে ওয়াশিংটনের মতের অমিলের কারণে সামরিক সহায়তা প্যাকেজটি আটকে যায়; যা গেল এপ্রিলে অনুমোদিত হয়েছিল। এ সময়ের মধ্যে রাশিয়া ইউক্রেনে তাদের হামলা বাড়িয়েছে। কয়েক দফা ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানোসহ উত্তর-পূর্ব খারকিভ অঞ্চলে একটি নয়া ফ্রন্টলাইন খুলেছে মস্কো।

৬১ বিলিয়ন ডলারের সহায়তা প্যাকেজটি অনুমোদনের পর যুক্তরাষ্ট্রের কোন সিনিয়র কর্মকর্তার এটাই প্রথম ইউক্রেন সফর। আচমকা এ সফরে ভলোদিমির জেলেনস্কির সাথে দেখা করে ব্লিঙ্কেন প্রতিশ্রুতি দেন যে, যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক সহায়তা যুদ্ধক্ষেত্রে রাশিয়ার আগ্রাসনের বিরুদ্ধে কিয়েভকে জয়ী হতে সহায়তা করবে।

তিনি বলেন, ‘সহায়তা প্যাকেজটি কিয়েভে পাঠানোর প্রক্রিয়ায় আছে। কিছু সহায়তা এরইমধ্যে ইউক্রেনে পৌঁছেছে ও বাকিটা পৌঁছানোর অপেক্ষায় রয়েছে।’

ব্লিঙ্কেন বলেন, ‘একটি শক্তিশালী, সফল, সমৃদ্ধ, মুক্ত ইউক্রেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের জন্য উপযুক্ত উত্তর হিসেবে গণ্য হবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘সময়ের সাথে সাতে ইউক্রেন তার নিজের পায়ে দৃঢ়ভাবে দাঁড়াবে; সেটা সামরিক, অর্থনৈতিক ও গণতান্ত্রিকভাবে। তার অপেক্ষায় আছে যুক্তরাষ্ট্র।’

ব্লিঙ্কেন পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই মঙ্গলবার (১৪ মে) সকালে ট্রেনে করে কিয়েভে পৌঁছেন। খারকিভ অঞ্চলের উত্তরে একটি রাশিয়ার স্থল আগ্রাসন শুরুর কয়েক দিন পরেই এ সফরে এলেন তিনি।

সিএন/আলী

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন