শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪

শিরোনাম

যুক্তরাষ্ট্রের মাটিতেও ভারত-পাকিস্তান ম্যাচের টিকিটের চাহিদা তুঙ্গে

রবিবার, ফেব্রুয়ারী ২৫, ২০২৪

প্রিন্ট করুন

ফোর্ট লডারহিল, যুক্তরাষ্ট্র: টি-২০ বিশ্বকাপের নবম আসর যৌথভাবে আয়োজন করবে যুক্তরাষ্ট্র ও ওয়েষ্ট ইন্ডিজ। আগামী জুনে শুরু হতে যাওয়া এ আসর নিয়ে ক্রিকেটপ্রেমিদের মধ্যে বাড়তি উন্মাদনা আছে বলে জানিয়েছে আয়োজক দেশ যুক্তরাষ্ট্র। খবর এএফফির।

ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) জানিয়েছে, নিউইয়র্কে ক্রিকেটর দুই চিরপ্রতিন্দ্বন্দি পাকিস্তান ও ভারতের মধ্যকার বহুল প্রত্যাশিত ম্যাচের টিকিটের জন্য ক্রিকেটপ্রেমিদের চাহিদা ২০০ গুণেরও বেশি।

৩৪ হাজার ধারণক্ষমতার অস্থায়ী নাসাউ কাউন্টি ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আগামী ৯ জুন মুখোমুখি হবে পাকিস্তান ও ভারত। স্টেডিয়ামটি এখনো পুরোপুরিভাবে তৈরিই  হয়নি।

ঐতিহাসিকভাবেই ওয়েস্ট ইন্ডিজে নির্ধারিত ম্যাচগুলোতে বেশি জনসমাগম হওয়াটাই স্বাভাবিক। তবে, এ প্রথম বারের মত যুক্তরাষ্ট্রে আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হবে। যুক্তরাষ্ট্রের ডালাসের কাছে লডারহিল, দক্ষিণ ফ্লোরিডা ও গ্র্যান্ড প্রেইরি স্টেডিয়ামে ১৬টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের যুক্তরাষ্ট্রের আয়োজক কমিটির প্রধান নির্বাহী ব্রেট জোন্স বলেন, ‘টিকিটের জন্য মানুষের চাহিদা অবিশ্বাস্য। ব্যালট প্রক্রিয়া থেকেই বুঝা যাচ্ছে টিকিটের জন্য সত্যিই বিশাল চাহিদা রয়েছে।’

পাকিস্তান-ভারত ম্যাচের টিকিট নিয়ে জোন্স বলেন, ‘সব বিশ্বকাপেই ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ নিয়ে সকলের মধ্যে বড়াতি আগ্রহ থাকে। আমার মনে হয়, দুইটি দল যুক্তরাষ্ট্রে খেলতে আসায় এখানকার মানুষের উন্মদনা দেখতে পারাটা আনন্দের হবে।’

আয়োজকেরা জানিয়েছেন, স্টেডিয়ামের ধারন ক্ষমতা ও টিকিটের চাহিদার মধ্যে বিপুল পার্থক্য পূরণ করা সম্ভব নয়। তারপরও যতটা সম্ভব, মানুষকে খেলা দেখার সুযোগ করে দেয়ার চেষ্টা করবে তারা।

ভারত ও পাকিস্তান ছাড়াও বিশ্বকাপের ম্যাচ খেলতে যুক্তরাষ্ট্রে যাবে শ্রীলংকা, দক্ষিণ আফ্রিকা, বাংলাদেশ, আয়ারল্যান্ড, নেদারল্যান্ডস ও কানাডা। স্বাগতিক হওয়ার সুবিধায় এ প্রথম বিশ্বকাপে খেলবে যুক্তরাষ্ট্র।

সিএন/আলী

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন