রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪

শিরোনাম

যুক্তরাষ্ট্রে অস্ত্র মামলায় বাংলাদেশি যুবকের ১৪ মাসের জেল

শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২৩

প্রিন্ট করুন
কোরআনের অবমাননা মরক্কোয় নারীকে সাড়ে তিন বছরের কারাদণ্ড 1
কোরআনের অবমাননা মরক্কোয় নারীকে সাড়ে তিন বছরের কারাদণ্ড 1

সিএন প্রতিবেদন: মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জেলা আদালতে এক বাংলাদেশিকে ১৪ মাসের কারাদণ্ড দিয়েছে গুয়াম এবং উত্তর মারিয়ানা দ্বীপপুঞ্জের (এনএমআই) জেলার অ্যাটর্নি শন এন অ্যান্ডারসন।

সম্প্রতি গুয়ামের অ্যাটর্নির কার্যালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। কারাদণ্ড প্রাপ্ত বাংলাদেশি যুবকের নাম মো. ইকবাল (৩৭)। একটি অস্ত্র মামলায় তাকে এই কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশের নাগরিক ইকবাল রোটা দ্বীপে বসবাস করতেন। তাঁর বিরুদ্ধে আইন বহির্ভূতভাবে আগ্নেয়াস্ত্র সঙ্গে রাখার অভিযোগ প্রমাণ হয়েছে। কারাগার থেকে মুক্তি পাওয়ার পর তাঁকে নির্বাসন প্রক্রিয়ায় দেশে ফেরৎ পাঠানো হবে।

২০১৬ সালের জুন মাসে ইকবাল সিএনএমআই-অনলি ট্রানজিশনাল ওয়ার্কার (সিডব্লিউ-১) ভিসায় কমনওয়েলথ অব দ্য মারিয়ানা দ্বীপপুঞ্জে (সিএনএমআই) যান। সিডব্লিউ-১ একটি নন-ইমিগ্র্যান্ট ভিসা। ২০১৭ সালের জানুয়ারিতে ভিসার মেয়াদ শেষ হওয়ার পরেও ইকবাল বৈধ অভিবাসনের কাগজপত্র ছাড়াই রোটা দ্বীপে থেকে যান। ২০২১ সালের অক্টোবরে ইকবাল বিনা অনুমতিতে অন্যের বাড়িতে প্রবেশ করেন এবং তাঁদের হত্যার হুমকি দেযন। ইকবালকে পরে অনুপ্রবেশ এবং হামলার অভিযোগে স্থানীয় আদালতে অভিযুক্ত করা হয়, তারপর জামিনে মুক্তি দেওয়া হয়।

২০২২ সালের মে মাসে ইকবালের কাছে একটি আগ্নেয়াস্ত্র রয়েছে বলে খবর পায় রোটার পুলিশ। সিএনএমআইয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের কর্মকর্তারা ইকবালের জন্য দ্বীপটির বিভিন্ন স্থানে তল্লাশি চালান। নয় ঘন্টা পর তারা জঙ্গল থেকে চুরি করা পয়েন্ট ৪০ ক্যালিবারের পিস্তলসহ ইকবালকে আটক করে। এক সপ্তাহ আগে চুরি যাওয়া আগ্নেয়াস্ত্রটি এক রোটা পুলিশ অফিসারের ছিল।

সিএনএমআই ডিপার্টমেন্ট অব পাবলিক সেফটি, ইউএস ব্যুরো অব অ্যালকোহল, টোব্যাকো, আগ্নেয়াস্ত্র ও বিস্ফোরক এবং ইউএস হোমল্যান্ড সিকিউরিটি ইনভেস্টিগেশনস এই মামলা তদন্ত করে। উত্তর মারিয়ানা দ্বীপপুঞ্জের জেলার সহকারী অ্যাটর্নি অ্যালবার্ট এস ফ্লোরেস জুনিয়র এই মামলার বিচার করেন।

সিএন/এমটি

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন