রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪

শিরোনাম

যুক্তরাষ্ট্রে বাড়ছে ‘এআই ট্যাক্স স্কেম’, সতর্কতা জরুরি

বৃহস্পতিবার, মার্চ ২১, ২০২৪

প্রিন্ট করুন

যুক্তরাষ্ট্রে চলছে ২০২৩ ট্যাক্স বছরের ব্যক্তিগত ট্যাক্স ফাইলিং। আগামী ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত জরিমানা ছাড়াই ট্যাক্স ফাইল করা যাবে। আর ট্যাক্স ফাইলের এই সময়ে বেড়েছে এআই ব্যবহার করে প্রতারণার মাত্রা। যার মাধ্যমে চুরি করা হচ্ছে ব্যক্তিগত তথ্য, হাতিয়ে নেওয়া হচ্ছে অর্থ। আর এই ফাঁদ থেকে বাঁচতে বাড়তি সতর্কতায় জোর দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

জানা গেছে, একটি চক্র এআই ব্যবহার করে এসব প্রতারণা করে থাকা। তারা মোবাইলে মেচেজ, মেইল, ভয়েস কল দিয়ে বিভিন্ন অফার দিয়ে থাকে। আর এসব অফারের লোভে গ্রহক কোন লিংকে প্রবেশ করলেই পড়তে হয় সমস্যায়। এছাড়া নিজেদের আয়কর বিভাগের লোক বলে পরিচয় দিয়েও চলে এসব প্রতারণা। মূলত এআই ব্যবহার করে আমেরিকান একসেন্ট ইনফুট করে দেওয়া হয় এসব কল।

যখন একজন ব্যক্তি ওইসব ব্যক্তির নির্দেশনা মতো কাজ করেন তখন তার যাবতীয় তথ্য চুরি করে নেওয়া হয়। তারপর তার ওই ব্যক্তি যদি রিফান্ড পান তাহলে একটি ফর্মে প্রতারক চক্রের ব্যাংক একাউন্ট সংযুক্ত করে আইআরএস বরাবর আবেদন করা হয়। আর রিফান্ডের পুরো অর্থই তখন চলে যায় প্রতারক চক্রের হাতে। এছাড়া কোন কোন প্রতারক চক্র ব্যক্তিগত তথ্য ব্যবহার করে ব্লেকমেইলও করার অভিযোগ আছে।

এসব বিষয়ে ম্যাকাফির প্রধান প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ স্টিভ গ্রোবম্যান বলেন, আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স (এআই) যে কীভাবে অভিশাপ হয়ে উঠছে, সেটি দিনদিন স্পষ্ট হয়ে উঠছে। এআই দিয়ে স্বজনদের কণ্ঠ নকল করে অনেককেই কল দিয়ে ব্যক্তিগত তথ্য জিজ্ঞেস করা হচ্ছে। এভাবেই চুরি হয়ে যাচ্ছে অনেক স্পর্শকাতর তথ্য। মানুষ নয়, ফোন করবে এআই কলার। তারপর ব্যক্তিগত তথ্য হাতানোর চেষ্টা হবে। এমন প্রতারণার উপায়ও সামনে এসেছে। অবিকল আপনার কোনো আত্মীয় বা বন্ধুর গলায় ফোন করছে এআই। এভাবেওপ্রতারণার শিকার হচ্ছেন অনেকে। তাই প্রতারণা এড়াতে খুব সাবধান হতে হবে।

তিনি বলেন, ট্যাক্স সিজনে এআই ভয়েস ক্লোনিং গত মাসে সর্বকালের সর্বোচ্চ উচ্চতায় পৌঁছেছে। শুধু ফেব্রুয়ারি মাসেই ম্যাকাফি এক মিলিয়নেরও বেশি ইউআরএল দেখতে পাচ্ছে যা গ্রাহকরা ক্লিক করার চেষ্টা করেছে।

তিনি বলেন, এই প্রতারণা থেকে বাঁচতে অ্যান্টি-ভাইরাস সফ্টওয়্যার এবং কল-ব্লকিং অ্যাপ্লিকেশানগুলো সহায়ক হতে পারে। এরমাধ্যমে ফেককলগুলো ফিল্টারিং হয়ে যায়। এছাড়া কেউ যদি আপনার সাথে যোগাযোগ করে এবং অর্থ এবং কল ব্যাক চায়; যে কোনো বার্তায় ক্লিক করার জন্য একটি লিঙ্ক পাঠায়—তাদের থেকে সাবধান থাকুন। আইআরএস হুমকি দেয় না এবং কল, টেক্সট বা ইমেলও করে না।

তিনি বলেন, এই ফাঁদ থেকে বাঁচতে মেইলে আসা বিভিন্ন উপহার কার্ড, চিঠি বা লিংক মুছে ফেলুন বা ব্লক করে রাখুন।

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন