মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪

শিরোনাম

যুক্তরাষ্ট্র-মেক্সিকোয় তাপপ্রবাহের আশঙ্কা বেড়েছে ৩৫ গুণ

বৃহস্পতিবার, জুন ২০, ২০২৪

প্রিন্ট করুন

জলবায়ুর পরিবর্তনের প্রভাবে তাপমাত্রার অস্বাভাবিক বৃদ্ধির পরিণামে যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল, মেক্সিকো এবং মধ্য আমেরিকায় তীব্র তাপপ্রবাহ দেখা দেওয়ার আশঙ্কা বেড়েছে প্রায় ৩৫ গুণ, বলছেন বিজ্ঞানীরা।

বিবিসি জানায়, বিশ্বের জলবায়ু বিজ্ঞানীদের গবেষণা সংগঠন ‘দ্য ওয়ার্ল্ড ওয়েদার অ্যাট্রিবিউশন’ (ডব্লিউডিব্লউএ) মে মাস এবং জুনের শুরুর দিককার বাড়তি তাপমাত্রা নিয়ে গবেষণা করেছে।

ওই সময়ে যুক্তরাষ্ট্রে তাপপ্রবাহ ছিল দক্ষিণের-পশ্চিমের রাজ্যগুলোতে, যার মধ্যে আছে ক্যালিফোর্নিয়া, নেভাডা এবং অ্যারিজোনা। একই সময়ে মেক্সিকোতে চরম তাপমাত্রায় মানুষের প্রাণহানিও হয়েছে।

ডব্লিউডব্লিউএ-এর গবেষকরা মে এবং জুনে উত্তর ও মধ্য আমেরিকাজুড়ে ৫ দিনের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা পর্যবেক্ষণ করেন।

বিশ্লেষণে দেখা যায়, জলবায়ু সংকটের কারণে ৫ দিনের তাপপ্রবাহে প্রায় ১ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস বেশি তাপমাত্রা ছিল। আর প্রাক-শিল্প যুগের তুলনায় এমন চরম তাপমাত্রা দেখা দেওয়া আশঙ্কাও ৩৫ গুণ বেশি দেখা গেছে গবষণায়।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, তাপপ্রবাহসহ চরম আবহাওয়াজনিত অনেক দুর্যোগই এখন প্রায়ই ঘটছে। জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে ঘন ঘনই এমন হচ্ছে। নতুন গবেষণা প্রতিবেদনে বিজ্ঞানীরা বলেছেন, চরম তাপপ্রবাহ দেখা দেওয়ার আশঙ্কা এখন সেই ২০০০ সালের চেয়ে চারগুণ বেশি।

ডব্লিউডব্লিউএ তাদের গবেষণায় যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চল এবং মেক্সিকোসহ গুয়াতেমালা,বেলিজ, এল সালভাদর ও হন্ডুরাসের তাপমাত্রাও পর্যবেক্ষণ করেছে। এইসব জায়গাতেও বিপজ্জনক মাত্রার উচ্চ তাপমাত্রা দেখা গেছে।

রয়েল নেদারল্যান্ডস আবহাওয়া ইন্সটিটিউট এর গবেষক ইজিদিন পিন্টো বলেন, “আমাদের জলবায়ু যে বিপজ্জনক মাত্রায় উত্তপ্ত হচ্ছে, তার আরেকটি সতর্কবার্তা হিসাবেই আমাদের এই গবেষণার ফলকে বিবেচনায় নেওয়া উচিত।

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন