শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪

শিরোনাম

রোহিঙ্গা সম্প্রদায়ের অনুপ্রবেশে এইডসর ঝুঁকি বাড়ছে

সোমবার, ফেব্রুয়ারী ১৪, ২০২২

প্রিন্ট করুন

কক্সবাজার: ‘সারা দেশে প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর স্বাস্থ্য সেবার নিশ্চিতের জন্য বর্তমান সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে। তবে কার্যকরী ভূমিকা পরিলক্ষিত হচ্ছে কম। সাম্প্রতিক কয়েক বছরে এইডস রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে। উল্লেখযোগ্য হারে দেখা গেছে রোহিঙ্গা সম্প্রদায় বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করার ফলে অনিয়ন্ত্রিত গর্ভপাত ও অনিয়ন্ত্রিত শারীরিক মেলামেশা এইডসের ঝুঁকি বাড়িয়ে দিয়েছে।’

রোববার (১৩ ফেব্রুয়ারি) কক্সবাজার জেলার একটি অভিজাত রেস্টুরেন্টে জাতীয় রোগী কল্যাণ সোসাইটির উদ্যোগে ‘এইডসের ভয়াবহতা, করতে হবে সতর্কতা’ শীর্ষক আলোচনা সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন। সোসাইটির প্রতিষ্ঠাতা ডাক্তার মাহতাব হোসাইন মাজেদের সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি ছিলেন সবুজ আন্দোলনের চেয়ারম্যান বাপ্পি সরদার। উদ্বোধন করেন প্রত্যাশার বাংলাদেশের চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল মামুন। প্রধান আলোচক ছিলেন সবুজ আন্দোলন কেন্দ্রীয় কার্য নির্বাহী পরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কাজী হুমায়ুন কবির। বিশেষ অতিথি ছিলেন সবুজ আন্দোলন কক্সবাজার জেলার আহবায়ক নুরুল আমিন সিকদার ভুট্টো।

বাপ্পি সরদার বলেন, ‘বর্তমানে আধুনিকতার ছোঁয়া ছড়িয়ে পড়েছে সব জায়গায়। বর্তমান ও আগামী প্রজন্মের জন্য নিরাপদ বাংলাদেশ গড়তে অনিয়ন্ত্রিত জীবনযাপন মারাত্মক ঝুঁকিতে ফেলছে। এ ক্ষেত্রে এইডসের ভয়াবহতা সম্পর্কে জনসচেতনতা তৈরি করা আমাদের প্রত্যেকের নৈতিক দায়িত্ব। রাষ্ট্রীয়ভাবে প্রচার মাধ্যমে তুলে ধরতে হবে এ রোগের ভয়াবহতা সম্পর্কে। চিকিৎসা ব্যবস্থা সহজলভ্য করার জন্য উদ্যোগ নিতে হবে।’

মাহতাব হোসাইন মাজেদ বলেন, ‘রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশে এইডসের ঝুঁকি বাড়ছে। জাতীয় রোগী কল্যাণ সোসাইটি মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে স্বাস্থ্য সেবার জন্য নিয়মিত কাজ করে যাচ্ছে। আগামীতে বিনামূল্যে রোহিঙ্গা শিবিরে স্বাস্থ্য সেবা দেয়া হবে। সবাইকে ধর্মীয় বিধিবিধান মেনে জীবন পরিচালনা করতে হবে।’

সভায় সবুজ আন্দোলন কক্সবাজার জেলার সদস্য সচিব আজাদ ইসলাম, যুগ্ম আহবায়ক মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন, মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন, আমানুল ইসলাম বাবুল, ফাতেমা আনকিছ ডেইজি, মোহাম্মদ ইউনুস, আখি আক্তার, জোৎস্না আক্তার মুন্নি উপস্থিত ছিলেন।

সিএন/এমএ

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন