শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪

শিরোনাম

লং কোভিড পুর্নবাসনে প্রয়োজন ফিজিওথেরাপি চিকিৎসা

বুধবার, সেপ্টেম্বর ৮, ২০২১

প্রিন্ট করুন
ডাক্তার এম ইয়াছিন আলী 1
ডাক্তার এম ইয়াছিন আলী 1

ডাক্তার এম ইয়াছিন আলী: আজ বুধবার ৮ সেপ্টেম্বর বিশ্ব ফিজিওথেরাপি দিবস। ১৯৯৬ সাল থেকে প্রতি বছর সারা বিশ্বে দিবসটি পালন করা হয়। যেহুতু সারা বিশ্ব গত ১৮ মাস ধরে একটি কোভিড প্যানডেমিকের মধ্যে অতিবাহিত করছে, তাই এবার দিবসটির প্রতিপাদ্য বিষয় হচ্ছে ‘লং কোভিড পুর্নবাসনে ফিজিওথেরাপি চিকিৎসা।’

কোভিড -১৯ সেরে উঠার পর বেশ কিছু দীর্ঘ মেয়াদী উপসর্গ দেখা যায়। যেমন- শ্বাসকষ্ট, বুকে ব্যথা বা বুকে চাপ অনুভব করা, চরম ক্লান্তি বা অবসন্নতা, জয়েন্ট ব্যথা, মাংস পেশি ব্যথা, হতাশা বা উদ্বিগ্নতা, ঘুমাতে অসুবিধা বা অনিদ্রা, স্মৃতিভ্রম বা মনোযোগে সমস্যা, বুক ধড়ফড় করা, কানে ঝি ঝি শব্দ হওয়া, শরীরের তাপমাত্রা বৃদ্ধি , মাথা ব্যথা, গলা ব্যথা, স্বাদ বা গন্ধের পরিবর্তন ইত্যাদি। উপসর্গগুলি যদি ১২ সপ্তাহ বা তারও বেশী সময় ধরে অব্যাহত থাকে, যা কোভিড ১৯ এর উপসর্গের সাথে সামঞ্জস্যপু্র্ণ, তাহলে এ অবস্থাকে লং কোভিড বলে বিবেচিত হবে।

সাধারণত কোভিড -১৯ আক্রান্ত হওয়ার সময় থেকে চার সপ্তাহ পর্যন্ত একিউট কোভিড -১৯  এবং চার সপ্তাহ থেকে ১২ সপ্তাহ পর্যন্ত সময়কে অনগোয়িং কোভিড-১৯ বলা হয় ।

লং কোভিড একটি মাল্টি সিস্টেমিক রোগ, যার প্রায় দুই শতাধিক উপসর্গ তালিকাভুক্ত হয়েছে। উপসর্গগুলো পরিবর্তনশীল বা একাধিক উপসর্গের সংমিশ্রন হওয়ায় এ সমস্যার নিরসনে মাল্টি ডিসিপ্লিনারী টিটমেন্ট এপ্রোচের প্রয়োজন। বিশেষ করে কোভিড পরবর্তী পুর্ণবাসনের জন্য ফিজিওথেরাপি চিকিৎসার গুরত্বপূর্ণ ভূমিকা  রয়েছে  তাই এ বছর ওয়ার্ল্ড কনফেডারেশন ফর ফিজিক্যাল থেরাপি (ডব্লিউসিপিটি) উপরের প্রতিপাদ্য বিষয় নির্ধারণ করেছে।

তাছাড়া, যে সব রোগীরা আগে থেকেই বিভিন্ন রকম আর্থাইটিস যেমন- রিউমাটয়েড আথ্রাইটিস, অষ্টিওআর্থাইটিস, এনকাইলোজিং স্পন্ডিলাইটিস, ডিজেনারেটিভ ডিজিজ যেমন- স্যারভাইক্যাল স্পনডাইলোসিস, লাম্বার স্পনডাইলোসিস কিংবা স্ট্রোক পরবর্তী প্যারালাইসিস রোগে আক্রান্ত রোগীদের করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর জয়েন্টের মুভমেন্ট কম হওয়ায় জয়েন্টগুলি স্টিফনেস ডেভেলপ করে, যা স্বাভাবিক অবস্থানে ফিরিয়ে আনতে ফিজিওথেরাপি চিকিৎসার প্রয়োজনীয়তা  অপরিসীম।

তাই কোভিড পরবর্তী জটিলতা কমাতে এবং লং কোভিডে আক্রান্ত রোগীকে পুর্নবাসন করতে একজন ফিজিওথেরাপি বিশেষঙ্গের পরামর্শ নিয়ে ব্রিদিং এক্সারসাইজ বা শ্বাসতন্তের ব্যায়াম করলে শ্বাস-প্রশ্বাস জনিত কষ্ট কমে আসবে। তারপর ফিজিক্যাল ফিটনেস ফিরে পেতে বিভিন্ন ধরনের এরোবিক এক্সারসাইজ, স্ট্রেচিং এক্সারসাইজ , স্ট্রেন্দেনিং এক্সারসাইজ খুবই কার্যকারী।

ছাড়াও জয়েন্ট ও মাংসপেশির ব্যথা কমাতে ফিজিওথেরাপি চিকিৎসা খুবই গুরত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করে। তাই যারা কোভিড পরবর্তী লং কোভিডে আক্রান্ত তারা নিকটের একজন ফিজিওথেরাপি বিশেষঙ্গের পরামর্শ নিন, সুস্থ জীবন যাপন করুন।
লেখক: ফিজিওথেরাপি বিশেষঙ্গ,চীফ কনসালটেন্ট, ঢাকা সিটি ফিজিওথেরাপি হাসপাতাল, ধানমন্ডি, ঢাকা।

চলমান নিউইয়র্ক/মোহাম্মদ আলী

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন