রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪

শিরোনাম

শাহজালাল বিমান বন্দরে কার্গো হ্যান্ডেলিং সেবার মান নিয়ে অখুশি বিজিএমইএ

বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২১

প্রিন্ট করুন
BGMEA 2 1
BGMEA 2 1

ঢাকা: হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে কার্গো হ্যান্ডেলিং সেবার মান বৃদ্ধির জন্য সরকারকে অনুরোধ জানিয়েছে বাংলাদেশ পোশাক প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক সমিতি (বিজিএমইএ)।

বিজিএমইএ এর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এসএম মান্নানের (কচি) নেতৃত্বে বিজিএমইএ এর একটি প্রতিনিধিদল বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতি মন্ত্রী মো. মাহবুব আলীর  সাথে তার সচিবালয়স্থ কার্যালয়ে সাক্ষাৎকালে এ অনুরোধ জানান।

বিজিএমইএ এর সহ সভাপতি মো. নাসির উদ্দিন, পরিচালক মো. মহিউদ্দিন রুবেল, মো. খসরু চৌধুরী ও রাজিব চৌধুরী এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

আলোচনাকালে বিজিএমইএ এর নেতারা বলেন, ‘রপ্তানি কার্গো স্ক্যানিং করার প্রক্রিয়াকে গতিশীল করার জন্য বিমান বন্দরে পর্যাপ্ত সংখ্যক এক্সপ্লুুসিভ ডিকেটশন সিস্টেমস (ইডিএস) মেশিন স্থাপন করা জরুরি। পাশাপাশি, বিমান বন্দরে বিদ্যমান ইডিএস মেশিনগুলোও যাতে সব সময় সচল থাকে, সে জন্য সেগুলো যথাযথভাবে সংরক্ষণ করার উপরও জোর দেন নেতৃবৃন্দ, যেহেতু প্রযুক্তিগত ত্রুটির কারণে স্ক্যানিং প্রক্রিয়া প্রায়ই বাধাগস্ত হয়।

বিজিএমইএ নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, ‘কার্গো ভিলেজে স্থান সংকুলান না হওয়ায় অনেক সময় পণ্য বিমান থেকে নামিয়ে খোলা জায়গায় রাখার ফলে বৃষ্টিতে ভিজে নষ্ট হয়। এ ছাড়াও যথাস্থানে মার্কিং করে না রাখার কারণে পণ্য সহজে খুঁজে পাওয়া যায় না।’

এ সমস্যা সমাধানে বিমান হতে পণ্য নামানোর পর যত তাড়াতাড়ি সম্ভব কেনোপির ভেতর পণ্য নিয়ে আসা ও পণ্য সহজে খুঁজে পাওয়ার জন্য যথাস্থানে মার্কিং করে রাখার নির্দেশনা দেয়ার জন্য প্রতিমন্ত্রীকে তারা অনুরোধ জানান।

তারা বলেন, ‘পণ্য চালানগুলো খোলা আকাশের নিচে না রেখে বিজিএমইএ এর গুদাম/ক্যানোপিতে যথা সম্ভব রাখা প্রয়োজন। সব গুদাম ও ক্যানোপিতে সারিবদ্ধভাবে মাল রাখার ব্যবস্থা করা প্রয়োজন, যাতে করে অধিক পরিমাণ পণ্য সংরক্ষণ করা যায়।’ গুদামের সংখ্যা বৃদ্ধির জন্যও তারা অনুরোধ জানান।

বিজিএমইএ এর প্রতিনিধি দল পণ্য চালান খুঁজে পেতে দেরি হলে ডেমারজ চার্জ আদায় না করার জন্য  প্রতি মন্ত্রীকে অনুরোধ জানান।

চলমান নিউইয়র্ক/মোহাম্মদ আলী

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন