শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪

শিরোনাম

শেখ হাসিনার অধীনে কোন সাজানো নির্বাচন জনগণ মেনে নিবে না

শুক্রবার, জুলাই ১৪, ২০২৩

প্রিন্ট করুন

পটিয়া, চট্টগ্রাম: ফ্যাসিস্ট আওয়ামী লীগ অবৈধভাবে দীর্ঘ সাড়ে ১৪ বছর ধরে বাংলাদেশের সাধারণ জনগণের রক্ত চুষে খাচ্ছে উল্লেখ করে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক এনামুল হক এনাম বলেছেন, ‘গনতন্ত্রকে জগদ্দল পাথরের নীচে চাঁপা দিয়ে ভোটাধিকার কেড়ে নিয়েছে। রাষ্ট্রের প্রতিটি সেক্টরে দূর্নীতির আখড়া বানিয়ে দেশের অর্থনীতিকে ধ্বংস করে দিয়েছে। অবৈধ আওয়ামী সরকারের অবৈধ কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে যখন বিএনপির নেতৃত্বে আন্দোলন সংগ্রাম করে, তখন এ স্বৈরাচারী হাসিনা সরকার আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে ব্যবহার করে অমানবিক নির্যাতন চালাচ্ছে। এ সরকারের দায়েরকৃত হাজার হাজার মিথ্যা, বানোয়াট ও গায়েবী মামলা দিয়ে জর্জরিত বিএনপির নেতা-কর্মীরা। শত শত নেতা-কর্মীকে হত্যা ও গুম করার পরেও বিএনপির নেতাকর্মীরা খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের নির্দেশে বিরামহীন গনতান্ত্রিক আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন।’

শুক্রবার (১৪ জুলাই) বিকালে চট্টগ্রামে জেলার পটিয়া উপজেলার সাত নম্বর জিরি ইউনিয়নের কৈয়গ্রাম এলাকায় জিরি ইউনিয়ন বিএনপির নতুন গঠিত কার্যকরী কমিটির পরিচিতি সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

এতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এনামুলক হক আরো বলেন, ‘অবৈধ সরকারের পতনের ঘন্টা বেজে গেছে। অবিলম্বে  তাদেরকে জনগণের এক দফা আন্দোলনের কাছে নতি স্বীকার করতে হবে। কোন ধরনের ষড়যন্ত্র, মিথ্যা মামলা ও সাজানো বিচারের নামে সাজা দিয়ে জনগণকে দমিয়ে রাখা যাবে না। অবিলম্বে তাদেরকে পদত্যাগ করে নিরপেক্ষ সরকারের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করে বিদায় নিতে হবে। জনগণের মৌলিক অধিকার আদায়ে সবাই ঐক্যবদ্ধ হোন।’

জিরি ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি ইব্রাহিম সওদাগরের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আবুল হোসেন বাবুলের সঞ্চালনায় সভায় প্রধান বক্তা ছিলেন পটিয়া উপজেলা বিএনপির সদস্য সচিব খোরশেদ আলম। বিশেষ অতিথি ছিলেন পটিয়া উপজেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক রেজাউল করিম নেছার, মঈনুল আলম ছোটন, কামাল উদ্দীন, উপজেলা বিএনপির নেতা মোহাম্মদ ফিরোজ, আহমদ হোসেন, জেলা ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ মহসিন।

বক্তব্য দেন জিরি ইউনিয়ন বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি মোহাম্মদ জসীম উদ্দীন, আকতার হোসেন সিকদার, আবদুল আলীম, কাজী মোরশেদ, মীর বাবুল, খাইরুল আমিন বাবুল, মোহাম্মদ আনোয়ার, রেজাউল করিম, বাদশা মেম্বার, মোহাম্মদ ইয়াকুব, মো. শামশুল আলম, আবু সাইয়্যিদ, মো. শফি, মোহাম্মদ কাশেম, মোহাম্মদ আলী চৌধুরী, জানে আলম প্রমূখ।

সিএন/এমএ

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন