রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪

শিরোনাম

হামলার নেশায় মর্ত আমেরিকানরা—৬ মাসে ৩৪০ বন্দুক হামলা

বুধবার, জুলাই ৫, ২০২৩

প্রিন্ট করুন

বন্দুক হামলা যেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সাধারণ ঘটনা হয়ে পড়েছে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মানবাধিকার, গণতন্ত্র, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে নাক গলানো মার্কিনিদেরই নিরাপত্তা ব্যবস্থাই চরম সংকটে। আর এসব বন্ধে যেন কোন মাথাব্যাথাই নেই দেশটির। বরং অন্য দেশের সমালোচনা করাই যেন তাদের অভ্যাসে পরিণত হয়েছে।

পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, দেশটিতে এ বছরে (২০২৩) এ পর্যন্ত কমপক্ষে ৩৪০টি বন্দুক হামলার ঘটনা ঘটেছে। গান ভায়োলেন্স আর্কাইভের বরাত দিয়ে মার্কিন সম্প্রচারমাধ্যম সিএনএনের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

গত ৪ জুলাই প্রকাশিত ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বন্দুকবাজির এসব ঘটনা দেশটির জননিরাপত্তা ও অস্ত্র আইনকে নতুন করে আলোচনায় নিয়ে এসেছে।

গান ভায়োলেন্স আর্কাইভের পরিসংখ্যান বলছে, গত ৪ দিনে দেশটিতে বন্দুক হামলা হয়েছে ৬টি। এসব হামলায় প্রাণ হারিয়েছেন ৬ জন। জুন মাসে হয়েছে ৬৩টি হামলা। এ হিসাবে এ বছরের এখন পর্যন্ত দিনে গড়ে প্রায় ২টি করে বন্দুক হামলা হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে।

প্রতিবছরের মতো এবারও ৪ জুলাইয়ের স্বাধীনতা দিবসের আগে বেড়েছে বন্দুক সহিংসতা। স্বাধীনতা দিবস উদযাপনের আগে যুক্তরাষ্ট্রের ফিলাডেলফিয়া, বাল্টিমোর ও টেক্সাসে গত কয়েকদিনের বন্দুক হামলায় নিহত হয়েছে অন্তত ১০ জন। আহত অন্তত ৪০ জন।

সোমবার (৪ জুলাই) সন্ধ্যায় ফিলাডেলফিয়ায় আলাদা গুলিবর্ষণের ঘটনায় পাঁচজন নিহত ও শিশুসহ দু’জন আহত হয়। এ ঘটনায় বুলেটপ্রুফ পোশাক পরিহিত ৪০ বছর বয়সী সন্দেহভাজন এক হামলাকারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

এদিকে, সোমবার রাতে টেক্সাসের ফোর্ট ওয়ার্থে স্থানীয় একটি উৎসবে এলোপাতাড়ি গুলিতে তিনজন নিহত ও আটজন আহত হয়। রবি থেকে সোমবার পর্যন্ত বাল্টিমোরে বন্দুক হামলা হয় অন্তত তিনটি।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, প্রতি বছর ৪ জুলাইয়ের আগে বন্দুক হামলা বেড়ে যায়। এছাড়া বছরজুড়ে দেশটির জনপদ থাকে আতঙ্কিত। আর এর বিরুদ্ধে কঠোর আইনি ব্যবস্থা না থাকায় হামলা দিন দিনবেড়েই চলেছে বলে মতামত বিশেষজ্ঞদের। আর তাই বন্দুক হামলা রোধে যথাযথ আইন প্রয়োগের আহ্বান জানিয়েছেন সচেতন মহল।

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন