সোমবার, ২০ মে ২০২৪

শিরোনাম

৮ মিলিয়ন লোকের শহরে ট্রাম্পের বিচারভার ১২ জনের কাঁধে!

শুক্রবার, এপ্রিল ১৯, ২০২৪

প্রিন্ট করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক: নিউইয়র্কে ৮ মিলিয়ন লোক বসবাস করেন। কিন্তু দেশের সবচেয়ে বিতর্কিত ব্যক্তিকে বিচার করার জন্য মাত্র ১২ জনকে বাছাই করা হয়েছে! স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার নিউইয়র্কের আদালতে এ জুরি গঠন করা হয়।

এটি সবার পছন্দের না হলেও সম্পর্ক গোপন রাখতে পর্নো তারকাকে দেওয়া ঘুষের মামলায় সাবেক এই প্রেসিডেন্ট দোষী নাকি নির্দোষ—আগামী সপ্তাহগুলোতে এই জুরি তা ঠিক করবে। ট্রাম্পই হচ্ছেন প্রথম কোনো সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট, যিনি ফৌজদারি মামলায় বিচারের মুখোমুখি হচ্ছেন।

বাদী ও রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা এই জুরি সদস্যদের বাছাই করেছেন। জুরিদের মধ্যে সাতজন পুরুষ ও পাঁচজন নারী। অবশ্য এখনো বিকল্প জুরি সদস্য বাছাইয়ের কাজ বাকি রয়েছে।

গত সোমবার জুরি বাছাইয়ের কাজ শুরু হয়। মামলাটি তদারকিতে আছেন বিচারপতি জুয়ান মার্চান। তিনি বলেন, ‘আমরা আমাদের জুরি পেয়ে গেছি। আগামী সোমবার প্রাথমিক আইনি যুক্তিতর্ক (ওপেনিং স্টেটমেন্ট) উপস্থাপন শুরু হবে।’

এর আগে দুজন জুরি সরে দাঁড়ানোর কথা জানান। কেউ কেউ মনে করেছিলেন, জুরি বাছাইয়ে কয়েক সপ্তাহ সময় লেগে যেতে পারে। কিন্তু ট্রাম্পের আইনজীবী দল সেভাবে চ্যালেঞ্জ জানাতে না পারায় দ্রুতই কাজটি সম্পন্ন হয়েছে।

নিউইয়র্কের ম্যানহাটন ডেমোক্র্যাট অধ্যুষিত। রিপাবলিকান ট্রাম্পের বিচারের ক্ষেত্রে নিরপেক্ষ থাকা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করলে ১৯৬ জন জুরি সদস্যের প্রায় অর্ধেকই বাদ পড়ে যান। ভয়ভীতির কারণেও কয়েকজন জুরি সরে দাঁড়ান।

যৌন সম্পর্কের বিষয়ে চুপ থাকার বিনিময়ে পর্নো তারকা স্টর্মি ড্যানিয়েলসকে ১ লাখ ৩০ হাজার মার্কিন ডলার দেওয়ার অভিযোগ উঠে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে। সরকারি কৌঁসুলিরা বলছেন, ২০১৬ সালের নির্বাচনকে প্রভাবিত করতে এই বেআইনি কাজ করা হয়েছিল।

দোষী সাব্যস্ত হলে ৭৭ বছর বয়সী ট্রাম্পের সর্বোচ্চ চার বছরের কারাদণ্ড হতে পারে। তবে জরিমানা দিয়ে তিনি কারাবাস থেকে রেহাই পেতে পারবেন। অবশ্য মামলায় আনা অভিযোগ অস্বীকার করে আসছেন ট্রাম্প।

আগামী নভেম্বরে অনুষ্ঠেয় প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্র্যাট প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের বিরুদ্ধে রিপাবলিকান পার্টির সম্ভাব্য প্রার্থী ট্রাম্প। এই মামলাকে ‘রাজনৈতিক’ বলে মন্তব্য করে আসছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় আদালতকক্ষ ত্যাগ করার সময় ম্যানহাটনের এই আদালতে আনা অভিযোগের সমালোচনা করে সংবাদমাধ্যমে লেখা বেশ কিছু প্রিন্ট করা নিবন্ধ সাংবাদিকদের দেখান ট্রাম্প।

আনীত অভিযোগকে ‘রাজনৈতিক’ মন্তব্য করে সাবেক এই প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘এটি খুবই অন্যায্য, খুবই বাজে বিষয়। গোটা বিশ্ব এই ধাপ্পাবাজি দেখছে।’ আদালতকক্ষের তাপমাত্রার বিষয়টিও সামনে আনেন ট্রাম্প। তিনি বলেন, সেখানে শীতে জমে যাওয়ার মতো অবস্থা।

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন