রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪

শিরোনাম

মেরুপ্রভা: পৃথিবীর বুকে স্বর্গের আলো!

বুধবার, জুন ২৯, ২০২২

প্রিন্ট করুন

ইফতেখার ইসলাম: আকাশে আলোর নৃত্য দেখেছেন কখনো? আমি কৃত্রিম আতশবাজির কথা বলছি না। কিন্তু প্রকৃতির আকাশে যে কৃত্রিম আলোর নাচ দেখায় তা কি জানা আছে কারো? মেরুজ্যোতি বা মেরুপ্রভ পৃথিবীর দুই মেরুর আকাশে ঘটে যাওয়া এক নৈসর্গিক প্রাকৃতিক ঘটনা। উত্তর মেরুতে এর নাম সুমেরুপ্রভা  আর দক্ষিণে এর নাম কুমেরুপ্রভা।  অনেকেই একে স্বর্গীয় আলো মনে করতো। এর নামকরণ করা হয় গ্রিক ভোরের দেবীর নামানুসারে। বিজ্ঞানী গ্যালিলিও এর নামকরণ করেন। 

মেরুজ্যোতিকে অতিপ্রাকৃত কোন ব্যাপার মনে হওয়ার কারনে প্রাচীনকালে মেরুর বাসিন্দারা (এক্সিমো, রেডইন্ডিয়ান) একে রহস্যময় শক্তি মনে করতো। একে অনেকে স্বর্গীয় আলো মনে করতো যা স্বর্গ থেকে শুরু  হয়ে পৃথিবীতে এসে শেষ হয়েছে। এ পথেই মৃত্যুর পর আত্মা স্বর্গের সন্ধান লাভ করে।অনেকে একে ভবিষ্যতের দিক নির্দেশনা মনে করতো। সবুজ রঙের প্রভাকে তারা মনে করতো ভবিষ্যতের সুখের আভাস। আর লাল রঙের প্রভাকে মনে করতো ভবিষ্যত দূর্যোগময়। লোহিত প্রভাকে যুদ্ধের পূর্বাভাস মনে করতো।

মেরুপ্রভা কি এবং কেন? 

বায়ুমন্ডলের উপরিভাগের আলোর বিকিরণই মূলত মেরুপ্রভা। একে দেখতে বাতাসে উজ্জ্বল দোদুল্যমান আলোকীয় পর্দা বা ফিতার মতো লাগে।অনেকগুলো সমান্তরাল আলোকরশ্মি ঘন সন্নিবেশিত হয়ে আলোকপ্রভা সৃষ্টি করে। এর স্থানান্তরের দিক পূর্ব হতে পশ্চিমে। আর এইসময় পানির উচ্চতা হ্রাস বৃদ্ধিতে যেমন ঢেউ সৃষ্টি হয় তেমন আলোর উজ্জ্বলতা পরিবর্তনের ফলে এতে ঢেউ সৃষ্টি হয়।

উচ্চতা উপর নির্ভর করে মেরুপ্রভার রঙ হতে পারে লাল, বেগুনি ও সবুজ। সৌরঝড় থেকে উৎপন্ন উচ্চ চার্জসম্পন্ন ইলেকট্রন বায়ুমন্ডলের উপরিস্তরের উপাদানের সাথে সংঘর্ষের ফলে আলোর প্রভা সৃষ্টি করে। সংঘর্ষের হার বায়ুমন্ডলের উচ্চতা হ্রাসের সাথে হ্রাস পায়। সুতরাং ইলেকট্রন যত বায়ুমন্ডলের গভীরে প্রবেশ করে সংঘর্ষ ও সেই সাথে আলোর বিকিরণ বৃদ্ধি পায়। বিকিরিত রশ্মির রঙ নির্ভর করে ইলেকট্রন গুলো কতো উচ্চতায় বায়ুমন্ডলের কোন উপাদানের সাথে সংঘর্ষ হয়েছে।

সাধারণত ২০-২০০ মাইল পর্যন্ত উচ্চতায় মেরুপ্রভা সৃষ্টি হয়। ভূপৃষ্ঠ থেকে ৬০ মাইল পর্যন্ত উচ্চতায় নাইট্রোজেন এর সাথে সংঘর্ষে বেগুনি রং এর ফোটন তৈরি হয়। ৬০-৯০ মাইল উচ্চতায় নাইট্রোজেনের সাথে সংঘর্ষে নীল রং এর ফোটন তৈরি হয়।৯০-১৫০ মাইল উচ্চতায় অক্সিজেনের সাথে সংঘর্ষে বিকিরিত আলোর রং হয় সবুজ। ১৫০ মাইল এর উপরে অক্সিজেনের সাথে সংঘর্ষে লাল রং নির্গত হয়। বিকিরিত এই আলোই নির্ধারণ করে মেরুপ্রভার বর্ণ।

আইআই/সিএন

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন